শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Protest: ‌খলিস্তানি বলে শিখ সম্প্রদায়কে অপমান করার প্রতিবাদে ধিক্কার মিছিল ব্যান্ডেলে#দক্ষিণবঙ্গ

Rajat Bose | ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ : ০৬


মিল্টন সেন, হুগলি:‌ পাগড়ি মাথায় থাকে। ওটা গোটা শিখ সম্প্রদায়ের গর্ব। সম্প্রতি সন্দেশখালিতে কর্তব্যরত শিখ পুলিশ আধিকারিককে খলিস্তানি বলার প্রতিবাদে গর্জে উঠল ব্যান্ডেল। সরব গোটা শিখ সম্প্রদায়। শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে আয়োজিত ধিক্কার মিছিলে যোগ দেন কয়েকশো শিখ ধর্মাবলম্বি। গলায় প্রতিবাদের প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে জোর গলায় ধিক্কার জানান তাঁরা। কোনও রাজনৈতিক দলের পতাকা না, দেশের জাতীয় পতাকা নিয়ে প্রতিবাদ মিছিল হাঁটেন ব্যান্ডেল, সহগঞ্জ ডানলপ গুরদোয়ারার শিখ সম্প্রদায়ের মানুষজন। ছিলেন চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার, কোদালিয়া ১ এবং দুই গ্রাম পঞ্চায়েত, দেবানন্দপুর, ব্যান্ডেল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান এবং হুগলি চুঁচুড়া পুরসভার কাউন্সিলররা। ব্যান্ডেল গুরদোয়ারার তরফে দেবেন্দ্র সিং চাওলা বলেছেন, ‘‌সন্দেশখালিতে কর্তব্য পালন করতে গিয়েছিলেন পুলিশ আধিকারিক জসপ্রীত সিং। তাঁকে বিজেপি খলিস্তানি বলে সম্বোধন করে। এর তীব্র নিন্দা জানাতেই সকলে জমায়েত করেছি।’‌ তিনি বিজেপি সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন, অবিলম্বে বিরোধী নেতাকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হোক। অসিত মজুমদার বলেছেন, ‘‌পুলিশ আধিকারিক জসপ্রীত সিংকে খলিস্তানি বলে অপমান করা হয়েছে। এটা বলা মানে গোটা শিখ জাতিকে অপমান করা। মাথায় পাগড়ি আছে বলেই খলিস্তানি হয়ে গেল?‌ দেশদ্রোহী হয়ে গেল?’‌‌ স্থানীয় পবনজিৎ সিং বলেছেন, ‘‌মাথায় পাগড়ি থাকলেই খলিস্তানি? পাগড়ি সমগ্র শিখ জাতির গর্ব। সেই পাগড়িকে অপমান করার অধিকার ওদের কে দিয়েছে? আসলে বিজেপি ধর্মের ভিত্তিতে মানুষকে ভাগ করতে চায়। ভারতবর্ষে সর্বধর্মের সহাবস্থান। সব ধর্ম–বর্ণের মানুষ একসঙ্গে বসবাস করে। সমগ্র শিখ জাতি বিজেপির এই মন্তব্যের প্রতিবাদে ধিক্কার জানাচ্ছে।’‌ ব্যান্ডেল মোড় থেকে মিছিল শুরু হয়ে গুরদোয়ারা স্টেশন রোড হয়ে ব্যান্ডেল পুলিশ ফাঁড়িতে শেষ হয়। শিখ সম্প্রদায়ের তরফে ফাঁড়িতে কর্তব্যরত আধিকারিকের হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেওয়া হয়।

ছবি:‌ পার্থ রাহা



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া