সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

TheArcArt

Soumitrisha Kundu: 'প্রিন্স চাই না, আমার কিং চাই': সৌমিতৃষা

শ্যামশ্রী সাহা | ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৩ : ১৪


শ্যামশ্রী সাহা : স্বপ্ন, বৃন্দাবনে বাড়ি থাকবে তাঁর। রাধা নয়, তিনি সারাদিন শ্যামের বাঁশি শুনবেন! শ্রীকৃষ্ণের গা ঘেঁষে বসে। কখনও মাথায় পাগড়ি, বাঁশি হাতে নিজেই হবেন ‘বাঁকেবিহারী। জন্মদিনে আর কী করবেন সৌমিতৃষা কুণ্ডু? 

প্রশ্ন: গত বছর জন্মদিন তো বৃন্দাবনে কেটেছিল এবার কী প্ল্যান?
সৌমিতৃষা: এবারও বৃন্দাবন যাব। পাঁচতারা হোটেলে নয় আমি জন্মদিনের পার্টি করি কৃষ্ণের সঙ্গে। এবছরও তাই করব। জন্মদিনের আগে রাতে ঘুম হয় না। মনে হয় বৃন্দাবন আমাকে ডাকছে। কখন যাব। খুব ইচ্ছে আছে বৃন্দাবনে একটা বাড়ি কেনার।

প্রশ্ন: এবারও কৃষ্ণ সাজবেন?
সৌমিতৃষা: ছোটবেলা থেকেই কৃষ্ণ সাজতে খুব ভাল লাগত। মা সাজিয়ে দিতেন। নাচের অনুষ্ঠান, গো অ্যা্জ ইউ লাইকেও কৃষ্ণ সাজতাম। আমার একটা বাঁশি আছে। মাথায় ওড়না দিয়ে বাঁশি হাতে এবারও মনের মানুষের মতো সাজার ইচ্ছে আছে।

প্রশ্ন: রাধা সাজতে ইচ্ছে করে না?
সৌমিতৃষা: ছোটবেলা থেকে রাধাকে আমি হিংসে করি। আমার কৃষ্ণের পাশে থাকে কেন? আমি থাকব। এখন বুঝি রাধাকে ডাকলে তবেই কৃষ্ণকে পাওয়া যায়।

প্রশ্ন: জন্মদিনে সৌমিতৃষা কেক কাটেন?
সৌমিতৃষা: নিরামিষ কেক কাটি। ওখানে পেঁয়াজ-রসুনও খাই না।

প্রশ্ন: আপনি তো খেতে খুব ভালবাসেন। অসুবিধা হয় না?
সৌমিতৃষা: বিশ্বাস করুন, কোনও অসুবিধা হয় না।


প্রশ্ন: ছোটবেলা থেকে এভাবেই জন্মদিন কাটান?
সৌমিতৃষা: ছোটবেলায় জন্মদিনে বাড়িতে কীর্তন হত। পাঠ হত। চন্দন পরে আমি বসে পাঠ শুনতাম।

প্রশ্ন: জন্মদিনের শপিং করলেন?
সৌমিতৃষা: এথনিক পরতে ভালবাসি। কুর্তি, চুড়িদার, সালোয়ার সেট— অনেক শপিং করেছি। বৃন্দাবনে নতুন পোশাক পরতে হয়।

প্রশ্ন: শুনেছি, বাংলাদেশ থেকেও উপহার আসে?
সৌমিতৃষা: আমার অনুরাগীরা তো একমাস ধরে জন্মদিন উদযাপন করছেন। মন্দিরে আমার জন্য পুজো দিচ্ছেন। কেউ নমাজ পরছেন, কেউ চার্চে গিয়ে প্রার্থনা করছেন। সেই ছবি ফ্যান পেজে পোস্ট করেন।
এবার বেশ কয়েকজন অনুরাগী জন্মদিন উপলক্ষ্যে ইস্কনে গিয়ে খিচুড়ি বিতরণ করেছেন। আমার কোথায় শুটিং চলছে জেনে সেখানে উপহার নিয়ে চলে আসেন অনেকে। এই ভালবাসাাটাই আমার কাছে আসল উপহার।

প্রশ্ন: কোনও আধ্যাত্মিক চরিত্র অভিনয়ের ইচ্ছে আছে?
সৌমিতৃষা: না। আমার স্বপ্নের চরিত্র শ্রীদেবীর অভিনীত চরিত্রগুলো।

প্রশ্ন: সেটা তো অনেকটাই করতে পেরেছেন ‘মিঠাই’ তে?
সৌমিতৃষা: আমি ভাগ্যবান, আমাকে অনেক সুযোগ দেওয়া হয়েছে। শ্রীদেবীর গান, লুকস, শেষের দিকে ‘মিঠাই’য়ের গল্পের সঙ্গে ‘চালবাজ’ ছবির অনেকটা মিল ছিল। বলতে পারেন আমার স্বপ্নপূরণ হয়েছে।

প্রশ্ন: ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দায় অনেকেই আসছেন। প্রতিযোগিতা বাড়ছে?
সৌমিতৃষা: যে মনে করবে তার কাছে। আমার নিজের সঙ্গে প্রতিযোগিতা। যতদিন যাচ্ছে বুঝতে পারছি, একমাত্র নিজের সঙ্গেই প্রতিযোগিতা সম্ভব। কে কী করছে, কী পরছে— এটা নিয়ে ভাবি না। ‘মিঠাই’কে ‘মিঠি’ ছাপিয়ে গিয়েছে। ‘মিঠি’র খেকে রুমিকে (‘প্রধান’ ছবির চরিত্র)। এবার অন্য কিছু করতে হবে। এটাকেই প্রতিযোগিতা মনে করি। সব মাধ্যমেই এখন খুব ভাল কাজ হচ্ছে। আসল কথা, কে কতটা ভাল অভিনয় করতে পারছেন, দর্শক তাঁকে কতটা গ্রহণ করছেন।

প্রশ্ন: ‘প্রধান’ আপনার প্রত্যাশা কতটা মেটাতে পারল?
সৌমিতৃষা: অনেকটা। বড় পর্দার প্রথম চরিত্র। আমার লিপে একটা গান খুব জনপ্রিয় হয়েছে, লোকের মুখে মুখে ফিরছে। এখানে দর্শক ‘মিঠাই’কে খোঁজেননি। ‘রুমি’কে ভালবেসেছেন। আমি এটাই চেয়েছিলাম।

প্রশ্ন: নতুন ছবির অফার আছে নিশ্চয়ই?
সৌমিতৃষা: হ্যাঁ আছে। স্ক্রিপ্ট রেডি হচ্ছে। আর একটু এগোক। তখন বলব।

প্রশ্ন: একটা কাজ শেষ করে নতুন কাজ শুরুর আগের সময় কীভাবে কাটান?
সৌমিতৃষা: কাজের জন্য তাড়াহুড়ো করলে হবে না। এই যে এখন শুটিং নেই, আমি কিন্তু ভাল আছি। জানেন তো, যখন ধারাবাহিক করতাম মাসে ২৮-২৯ দিন কাজ করতাম। পরিবারকে সময় দিতে পারতাম না। কাজ থেকে ফেরার পর ক্লান্ত লাগত। ঘুমিয়ে পড়তাম। এখন নিজেকে সময় দিতে পারছি। মা-বাবার সঙ্গে সময় কাটাচ্ছি।

প্রশ্ন: এখন আপনি ছোটপর্দা থেকে দুরে। কিন্তু ‘মিঠাই’ যে পরিচিতি দিয়েছে সিনেমার একটা চরিত্র কি সেটা দিতে পারে?
সৌমিতৃষা: একদিনে পারে না। ‘মিঠাই’ও একদিনে হয়নি। আড়াই বছর ধরে দর্শক আমাকে দেখেছেন। একটা সিনেমা যদি ৫০ দিনও চলে পরিচিতি বাড়বে। কিন্তু নিজেকে প্রমাণ করতে আরও কাজ করতে হবে। একটা চরিত্র করে সুপারস্টার হওয়া যায় না।

প্রশ্ন: বাংলাদেশে আপনি খুব জনপ্রিয়, ছবির অফার আছে?
সৌমিতৃষা: এখনও পাইনি। কাজ করতে চাই।

প্রশ্ন: জন্মদিনে কৃষ্ণর কাছে কী চাইবেন?
সৌমিতৃষা: আমি যেন আরও আধ্যাত্মিক হয়ে যাই।

প্রশ্ন: ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আর আধ্যাত্মিক জগত ব্যালান্স করবেন কী করে, অভিনয় করবেন না?
সৌমিতৃষা: এর সঙ্গে কাজের তো কোনও বিরোধ নেই। তুলনাও চলে না। আধ্যাত্মিক উন্নতি হলে জীবন, কাজ সব দিকেই উন্নতি হবে।

প্রশ্ন: আপনার প্রেম শুধুই ভগবান কৃষ্ণ। বাস্তবের প্রিন্স চার্মিং?
সৌমিতৃষা: এখন শুধুই কাজ। এর আগে আপনাকে বলেছিলাম, ডাক্তার পাত্র পছন্দ। জানেন, ডাক্তারের লাইন পড়ে গিয়েছিল(হাসি)। আমি প্রিন্স চাই না। ওরা ‘নাজুক’। আমি চাই ‘কিং’। রাজকুমার না, রাজা চাই। টল, ডার্ক, হ্যান্ডসাম আর ম্যাচিওরড।

মডেল - সৌমিতৃষা কুণ্ডু
পোশাক - হাউস অফ দেবারুণ, বহুরূপী শান্তিনিকেতন @অভিষেক রায়, সৌম্যদীপ দত্ত
স্টাইলিং -অভিষেক রায় @বহুরূপী শান্তিনিকেতন
গয়না মুনলাইট ক্রিয়েশন
মেকআপ- জেসমিন ধর, উজ্জ্বল দেবনাথ
হেয়ার- জ্যোৎস্না কর্মকার
ছবি সায়ন্তন দত্ত
ভিডিও আবীর, সায়ন্তন
লোকেশন- দ্য পার্ক কলকাতা, চ্যাপ্টার-২
ফুড পার্টনার - করিমস মুম্বই, চ্যাপ্টার-২
ভাবনা ও প্রয়োগ-শ্যামশ্রী সাহা
শুট কো-অর্ডিনেটর - অঙ্গনা ঘোষ



বিশেষ খবর

নানান খবর

Earth day 2024 #Aajkaal #EarthDay2024 #EarthDay #aajkaalonline

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া