সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Narendra Modi: ভোট সন্দেশখালির মহিলাদের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ! প্রশ্ন তুললেন মোদি#দক্ষিণবঙ্গ

Kaushik Roy | ০১ মার্চ ২০২৪ ১৭ : ৪৩


আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রত্যাশামতোই উঠে এল সন্দেশখালির প্রসঙ্গ। সেখানকার রাস্তায় লাগাতার মহিলাদের প্রতিবাদ কর্মসূচি ও ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে শুক্রবার আরামবাগের মঞ্চ থেকে রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেইসঙ্গে অভিযোগ করলেন দেশে বিজেপি বিরোধী আইএনডিআইএ বা "ইন্ডিয়া" জোটের নেতারা সন্দেশখালি নিয়ে গান্ধীজির বলা বাঁদরের মতো কান,চোখ ,মুখ বন্ধ রেখেছেন। তাঁর অভিযোগ, দুর্নীতি ও তোষণকে প্রশ্রয় দেওয়াই ইন্ডিয়া জোটের লক্ষ্য।  লোকসভা নির্বাচনের আগে বঙ্গ সফরের প্রথমদিন আরামবাগের মঞ্চ থেকে রাজ্যে কেন্দ্রের তরফে নেওয়া ৭ হাজার কোটি টাকার প্রকল্পের শিলান্যাস করার পর চলে যান রাজনৈতিক সভামঞ্চে। সেখান থেকে সন্দেশখালি নিয়ে তৃণমূলকে জোরালো আক্রমণ করেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, তৃণমূল মুখেই শুধু মা-মাটি-মানুষের কথা বলে। অভিযোগ করে তিনি বলেন, "তৃণমূল সন্দেশখালির মা-বোনেদের সঙ্গে যেটা করেছে তা দেখে গোটা দেশ দুঃখিত।" এবিষয়ে রাজা রামমোহন রায়ের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, "রাজা রামমোহন রায়ের আত্মা আজ দু:খে কাঁদছে।" নরেন্দ্র মোদির অভিযোগ, অভিযুক্তদের আড়াল করার চেষ্টা করেছে তৃণমূল‌।



প্রায় দু"মাস ফেরার থাকার পর বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার হয়েছে সন্দেশখালিকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত শেখ শাহজাহান‌। এদিন সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "কেউ তো অভিযুক্তকে আড়াল করছিল এতদিন। কিছু লোকের ভোট সন্দেশখালির মহিলাদের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ!" তাঁর কথায়, চোটের জবাব দিতে হবে ভোটে। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, তৃণমূলের গর্ব যে ওদের একটা নির্দিষ্ট ভোটব্যাঙ্ক আছে। এবার মুসলিম মহিলারা এই ভোটব্যাঙ্ক ভাঙতে এগিয়ে আসবেন।  সন্দেশখালি প্রসঙ্গে এদিন তৃণমূলকে আক্রমণ করার পাশাপাশি রাজ্যে বাম ও কংগ্রেসকেও আক্রমণ করেছেন নরেন্দ্র মোদি‌। তিনি বলেন, "বাম ও কংগ্রেসের এই সরকারের থেকে জবাব চাওয়ার সাহস নেই।" রাজ্যে শাহজাহানের গ্রেপ্তারির পেছনে তাঁর দলকেই কৃতিত্ব দিয়ে নরেন্দ্র মোদি বলেন, বিজেপি ও রাজ্যের মানুষের জন্যই অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়েছে। রাজ্যে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন দুর্নীতি নিয়েও সরব হয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। স্কুল ও পুরসভার নিয়োগ দুর্নীতির কথা তুলে তিনি বলেন, "তৃণমূল ভ্রষ্টাচারের কোনও রাস্তাই ছাড়েনি। তৃণমূলের মন্ত্রীর ঘর থেকে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা পাওয়া যায়। এত টাকা সিনেমাতেও দেখা যায় না। এই লুটেরাদের জবাব দিতে হবে।" সেইসঙ্গে অভিযোগ করেছেন, সরকারি প্রকল্পের জন্য কেন্দ্র টাকা দিলেও রাজ্য ব্যবহার করছে না। কার্যত সফরের প্রথমদিনের বক্তব্য থেকে পরিষ্কার, লোকসভা নির্বাচনে এবার বিজেপির বড় হাতিয়ার হতে চলেছে সন্দেশখালি।



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া