বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

TMC: পরাজয়ের দায় স্বীকার করে পদত্যাগ তৃণমূল প্রধান-উপপ্রধানদের

Sumit | ০৭ জুন ২০২৪ ১৮ : ৪৭


মিল্টন সেন,হুগলি : হুগলি লোকসভা কেন্দ্র পুনরায় তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে এসেছে। সাংসদ হয়েছেন অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জি। মোট ৭৬,৮৫৩ ভোটে তিনি পরাজিত করেছেন বিদায়ী বিজেপি সাংসদ লকেট চ্যাটার্জিকে। কিন্তু ফলাফল পর্যালোচনার পর দেখা গেছে সাতটি বিধানসভার মধ্যে তিনটিতে পিছিয়ে ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী। সবথেকে বেশি ব্যবধানে, মোট ৮২৮৪ ভোটে তৃণমূল প্রার্থী পিছিয়ে ছিলেন চুঁচুড়া বিধানসভায়। তাই ফলাফল বেরোনোর পর দলীয় প্রার্থী জিতলেও চুঁচুড়ার তৃণমূল নেতা কর্মীদের তেমন একটা উচ্ছ্বাস লক্ষ করা যায়নি। নিজের বিধানসভা কেন্দ্রে হারের কারণ পর্যালোচনা করতে চুঁচুড়া বিধানসভার অন্তর্গত ব্যান্ডেল, দেবানন্দপুর, কোদালিয়া-১ এবং ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এবং হুগলি চুঁচুড়া পুরসভার কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক করেন বিধায়ক অসিত মজুমদার। জানা গিয়েছে, বৈঠকে প্রধান উপপ্রধান এবং জন প্রতিনিধিদের ব্যর্থতা নিয়ে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিধায়ক। তারপরই এই ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে নিয়ে শুক্রবার সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান উপ প্রধানরা মগড়া বিডিও অফিসে গিয়ে তাঁদের পদত্যাগ পত্র জমা করেন। পদত্যাগ করেন কোদালিয়া-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সুচেতা মান্না পাল। এদিন মগড়া ব্লক অফিসে পদত্যাগ পত্র জমা করার পর সুচেতা জানিয়েছেন, পদত্যাগ করার এই সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ তাঁর নিজস্ব। তাঁর উপর দলের তরফে পদত্যাগ করার কোনও প্রকারের চাপ ছিল না। তাঁর পঞ্চায়েত এলাকায় দলের পরাজয়ের দায় নিজে নিয়ে পদত্যাগ করেছেন। এই প্রসঙ্গে চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার বলেছেন, "চারটি পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপ প্রধান পদত্যাগ করেছেন। আমি তাঁদের ধন্যবাদ জানাই, কারণ তাদের বিবেক আছে। তাঁরা থাকা অবস্থায় দলের পরাজয় হয়েছে। মানুষ বিজেপিকে ভোট দিয়েছে। কেনও এমন হল, তা নিয়ে বসে পর্যালোচনা করব।"




বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

সোশ্যাল মিডিয়া