শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

India-South Africa: বিরাটের শতরান, জাদেজার পাঁচ! বড় জয়ে একনম্বরে থেকেই শেষ চারে ভারত

Sampurna Chakraborty | ০৫ নভেম্বর ২০২৩ ১৫ : ৩৬


সম্পূর্ণা চক্রবর্তী: আটে আট। এক নম্বরে থেকেই সেমিফাইনালে ভারত। ২০০৩ বিশ্বকাপের পর টানা জয়। ইডেনে গমগম করে বাজছে "চক দে ইন্ডিয়া।" ক্ষণিকের বাজি প্রদর্শনী। দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দেওয়ার উচ্ছ্বাস রোহিত, বিরাটদের। সবমিলিয়ে দুর্দান্ত পরিবেশ। ম্যাচের বয়স ২০ ওভার। ইডেনের গ্যালারির একটাই আবদার, "কোহলি কো বল দো।" জন্মদিনে বিরাটের সবটুকু পেতে চাইছিল কলকাতার ক্রিকেট ভক্তরা। ৪৯তম শতরানে শচীন তেন্ডুলকারকে ছোঁয়ার পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকার এই হতশ্রী অবস্থায় যদি একটি উইকেটও চলে আসে, তাহলে মন্দ কী! যদিও সেই আশা পূরণ হয়নি। রবীন্দ্র জাদেজার ঘূর্ণিতে কুপোকাত প্রোটিয়ারা। ৩৩ রান দিয়ে একাই নিলেন ৫ উইকেট। ৩২৭ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ২৭.১ ওভারে ৮৩ রানেই অলআউট দক্ষিণ আফ্রিকা। ২৪৩ রানে জয় ভারতের। ইডেনে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে এদিন সর্বোচ্চ রান তোলে ভারত। অন্যদিকে ক্রিকেটের নন্দনকাননে সবচেয়ে কম রানে শেষ দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। 

ইডেনের পিচে ব্যাট করতে প্রোটিয়াদের যে সমস্যা হবে সেটা জানা ছিল। বিশেষ করে দ্বিতীয় ইনিংসে। যখন পিচ থেকে বাড়তি সুবিধা পায় স্পিনাররা। কিন্তু দ্বিতীয় স্থানে থাকা দলের যে এতটা খারাপ হাল হবে আশা করা যায়নি। ৬৭ রানে ৭ উইকেট! তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। আগের দিন সাংবাদিক সম্মেলনে তেম্বা বাভুমা বলেছিলেন, প্রথম ১০ ওভারে তাঁদের সতর্ক থাকতে হবে। কিন্তু কথা এবং কাজের মধ্যে কোনও মিল নেই। ১০ ওভারে ৩ উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। ফিরে যান কুইন্টন ডি কক (৫), তেম্বা বাভুমা (১১) এবং আইডেন মার্করাম (৯)। চলতি বিশ্বকাপে দুর্ধর্ষ ফর্মে থাকা ডি ককের রান না পাওয়া প্রোটিয়া শিবিরে বড় ধাক্কা। জাদেজার স্পিনে ডাহা ফেল টপ এবং মিডল অর্ডার। আগের ম্যাচে শতরান করা ভ্যান ডার দুসেনও (১৩) ব্যর্থ। জাদেজার ঘূর্ণিতে ধোঁকা খান ক্লাসেন এবং মিলার। প্রথমে বিরাট, পরে জাদেজা। দুইয়ের যুগলবন্দিতে শীর্ষে ভারত। 

ভারতের ইনিংস শেষ হওয়া মাত্র শুভেচ্ছার বন্যায় ভেসে যান বিরাট কোহলি। সবার আগে তাঁকে অভিনন্দন জানান খোদ মাস্টার ব্লাস্টার। সোশ্যাল মিডিয়ায় শচীন তেন্ডুলকার লেখেন, "ভাল খেলেছো বিরাট। এবছর ৪৯ থেকে ৫০ এ পৌঁছতে আমার ৩৬৫ দিন লেগে গিয়েছিল। আশা করব তুমি কয়েকদিনের মধ্যেই ৪৯ থেকে ৫০ এ পৌঁছে আমার রেকর্ড ভেঙে দেবে। অভিনন্দন।" ৩৫তম জন্মদিনে ৪৯তম শতরান। আদর্শ লেজেন্ড। অনবদ্য ব্যাটিং। সংক্ষিপ্ত ঝোড়ো ইনিংস খেলে রোহিত (৪০) আউট হওয়ার পর ভারতীয় ইনিংসকে টানেন কোহলি। পছন্দের মাঠে বিশেষ দিনে বিশেষ ইনিংস।

তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দেন শ্রেয়স আইয়ার। প্রথম চার ম্যাচে টানা ব্যর্থতার পর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ফর্মে ফেরেন। এদিন বিরাটের মঞ্চে আরও একটি ভাল ইনিংস উপহার মুম্বইকরের। আইপিএলে নিজের ঘরের মাঠে সাফল্য পেলেন নাইট অধিনায়ক। ৮৭ বলে ৭৭ রানে আউট হন। ইনিংসে ছিল ২টি ছয়, ৭টি চার। ১২১ বলে ১০১ রানে অপরাজিত বিরাট। শুভমন গিল (২৩), সূর্যকুমার যাদব (২২) শুরুটা ভাল করলেও বড় রান পায়নি। এদিন যাবতীয় লাইমলাইট কেড়ে দেন কোহলি। তাতে ম্লান জাদেজার পাঁচও। আরেকজনের নাম না বললেই নয়, তিনি মহম্মদ শামি। দুসেন এবং মার্করামের দুটো গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নেন বাংলার পেসার। 

ছবি: অভিষেক চক্রবর্তী



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া