মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

লক্ষ্মী সরার চাহিদা কমছে

Riya Patra | ২৮ অক্টোবর ২০২৩ ০৭ : ১০


রিয়া পাত্র

কোজাগরীর আলোয় তখন স্পষ্ট ধানজমির আলপথ। শহরের গলি রাস্তায় সেদিন নিয়ন আলো না জ্বললেও চলে। এমন দিনে গেরস্থের ঘর আলো করে বসেন লক্ষ্মী। সিংহাসনে প্রতিমা মূর্তি। চারপাশে ফুল, ফল, নৈবেদ্য, আলপনা আর ধূপের গন্ধ। প্রতিমার সামনে বসে সুখ শান্তি, আর সমৃদ্ধির কথা বিড়বিড় করে বলছেন কর্তা-গিন্নি। কোজাগরী পূর্ণিমায় এই প্রতিমা-পুজোর ছবি চেনা এবং স্পষ্ট। তবে লক্ষ্মী পুজোর দিনেই একবার মনে করা যাক লক্ষ্মী সরার কথা। কী এই লক্ষ্মী সরা? মূলত এই লক্ষ্মী সরার প্রচলন ওপার বাংলায়, সেখানকার পৃথক পৃথক জায়গা অনুসারে ভিন্ন ভিন্ন ধাঁচের লক্ষ্মী সরা রয়েছে। আবার এর ভাগও রয়েছে নানা রকমের। দেশভাগ কিম্বা তার পরবর্তী কালে ওপার বাংলার মানুষের বিশ্বাস এবং ঐতিহ্যের সঙ্গেই এ বঙ্গে চলে আসে লক্ষ্মী সরা। যদিও সেসব দিন পেরিয়েছে বহু আগে। এখন ফের দিনে দিনে এই বঙ্গে কমছে লক্ষ্মী সরার চল। তবে এমন মানুষও আছেন, যিনি বা যাঁরা গোটা বছর অন্য পেশা, অন্য কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকলেও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন কোজাগরী পূর্ণিমার। ঠিক লক্ষ্মী পুজোর কয়েকদিন আগে, সাজিয়ে বসেন তিলে তিলে আঁকা লক্ষ্মী সরার ভান্ডার। তাঁদেরই একজন কুমোরটুলির কৃষ্ণেন্দু পাল। গোটা বছর তাঁর রোজগারের পথ অন্য হলেও, মোটামুটি মার্চ মাস থেকে তিনি শুরু করে দেন লক্ষ্মী সরা আঁকার কাজ। লক্ষ্মীপুজোর একেবারে প্রাক্কালে কথা বলা গেল তাঁর সঙ্গেই। 

কৃষ্ণেন্দু পালের পূর্বসুরিরাও এই কাজ করেছেন। বংশ পরম্পরায় তিনিও তুলি হাতে বসেন সরার সামনে। ধীরে ধীরে ফুটিয়ে তোলেন একে পর এক চিত্র। লক্ষ্মী সরার প্রকারভেদ প্রসঙ্গে তিনি জানালেন, আগে আরও বহু রকমের লক্ষ্মী সরা আঁকা হলেও বর্তমানে ১০-১২ রকমের লক্ষ্মী সরা আঁকা হয়। তারমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য, ধান্যলক্ষ্মী, গণকাসরা, একচোখা লক্ষ্মী সরা, দুই পুতুল সরা, যেখানে লক্ষ্মীর সঙ্গে উপস্থিত থাকেন সরস্বতী, লক্ষ্মী এবং নারায়নের যুগল সরা বানানো হয়, তিন পুতুল সরা, যেখানে লক্ষ্মীর সঙ্গেই সরায় উপস্থিত থাকেন জয়া বিজয়া। পাঁচ পুতুল সরায় লক্ষ্মী, জয়া, বিজয়ার সঙ্গে যুক্ত হন রাধা কৃষ্ণ। এছাড়া বানানো হয় দুর্গা সরা, যেখানে মূলত দুর্গা অবস্থান করেন তাঁর সন্তানদের নিয়ে, তবে সরার এক অংশে আলাদা করে থাকেন লক্ষ্মী। তৈরি হয় সাত পুতুল সরা। কীভাবে আঁকেন লক্ষ্মী সরা? জানা গেল, বৃত্তাকার সরার ওপর খড়িমাটির প্রলেপ দিয়ে, শুকিয়ে নিয়ে, তার ওপর ধীরে ধীরে ফুটিয়ে তোলা হয় লক্ষ্মী, পেঁচা, ধানের শিষ, জয়া, বিজয়া, রাধা, কৃষ্ণ। তারপর লাস্ট ফিনিশিং হিসেবে করা হয় বার্নিশ। তবে এপার বাংলায় দিনে দিনে কমছে লক্ষ্মী সরার চাহিদা। নিজেই ৫০ বছর ধরে এই সরা তৈরি এবং বিক্রি করছেন কৃষ্ণেন্দু পাল, তার আগে করেছেন তাঁর বাবা। তিনি জানালেন, 'আগে বাঁধা ঘর ছিল কলকাতায় অনেকগুলি, যাঁরা লক্ষ্মীসরাতেই পুজো করতেন। কিন্তু এখন তাঁরাও দিনে দিনে সরার বদলে প্রতিমা পুজো করছেন। আগে এত প্রতিমার চল ছিল না।' তিনি স্পষ্ট জানালেন, আগে থেকে বিক্রি কমেছে, তবে তাঁর বানানো সরার চাহিদা রয়েছে এখনও। শ্যাম বাজার থেকে সরা কিনে নিয়ে গেলেন বুদ্ধদেব সাউ। বাবা, কাকুর পর এখন তাঁর দায়িত্ব পুজোর আগে লক্ষ্মী সরা নিয়ে যাওয়া। ওই সরাকেই বরণ করে তোলা হয় ঘরে, পুজো হয় কোজাগরী পূর্ণিমায়। চল কমেছে, তবে গেরস্থের ঘর থেকে এখনও হারিয়ে যায়নি লক্ষ্মী সরা। কৃষ্ণেন্দু পালের মতো শিল্পীরা মার্চ পড়লেই ফের বসবেন সরার সামনে, রঙ তুলি নিয়ে।



বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর

Kolkata Airport: ‌আধ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকবে কলকাতা বিমানবন্দর...

Kunal Ghosh: কুণাল ঘোষকে ফোন সুদীপের, সন্ধ্যায় চায়ের আমন্ত্রণ ...

কলকাতার স্কুল-কলেজই এখন বাড়ি কেন্দ্রীয় বাহিনীর, সিলেবাস শেষ করতে ভরসা অনলাইন ক্লাস...

জেভিয়ার্সে আলোচনাসভা

ECI: রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে বৈঠক জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চর, একদিনে ভোট চাইল তৃণমূল ...

Mamata Banerjee: দলের মতোই ঘরেও, পরবর্তী প্রজন্মে পরিবার আগলে রাখেন অভিষেক...

মঙ্গল রাতেই কলকাতায় মোদি, বুধে সভা করবেন বারাসাতে...

Kunal Ghosh: বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা কুণালের, তবে রাখলেন প্রশ্নও...

ক্যান্সার সচেতনতার বার্তায় হিউম্যানিটি লেডিস অন হুইলার ৱ্যালি...

MURDER UD: মদ্যপ সংহতি মারধর করতেন মাকে, সার্থক খুনের তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য...

Kunal Ghosh: সাধারণ সম্পাদক পদ থেকেও ইস্তফা গৃহীত হোক, অনুরোধ কুণালের ...

Kolkata: লেকটাউনে স্কুলের পাশ থেকে উদ্ধার শিশুকন্যা, হাসপাতালে মৃত ঘোষণা...

EC: রবিবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ...

ABHISHEK: ব্রিগেডের জনসভার পর আরও ৫ টি জনসভা করবেন অভিষেক ব্যানার্জি...

TMC: মনরেগা নিয়ে তৃণমূলের প্রতিবাদ

সোশ্যাল মিডিয়া