মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

বাংলায় শিক্ষাকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়: সত্যম রায়চৌধুরী

Pallabi Ghosh | ০৪ নভেম্বর ২০২৩ ১৪ : ১২


আজকাল ওয়েবডেস্ক: হাতিয়ার শিক্ষা, বিশেষত উচ্চশিক্ষা। বাংলায় শিক্ষার প্রসারে একদিকে যেমন রাজ্য সরকার সচেষ্ট তেমনই এগিয়ে এসেছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলিও। রাজ্য সরকার আয়োজিত বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনেও (বিজিবিএস) চালু হয়েছে এডুকেশন কনক্লেভ। আগামী ২১ নভেম্বর এবছরের বিজিবিএস-এর এডুকেশন কনক্লেভের আগে শনিবার ৪ নভেম্বর একটি প্রস্তুতি পর্ব সেরে নিল রাজ্য উচ্চশিক্ষা দপ্তর। সহযোগিতায় কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রি (সিআইআই)। স্বভূমিতে "এডুকেশন সিম্পোজিয়াম"-এর এদিনের এই অনুষ্ঠানে অন্যতম বিষয় ছিল "ওয়েস্ট বেঙ্গল: দ্য ইমার্জিং ডেস্টিনেশন অফ এডুকেশনাল ইনভেস্টমেন্ট"। শিক্ষাক্ষেত্রে এই রাজ্য যে বিনিয়োগকারীদের গন্তব্য হয়ে উঠেছে এই অনুষ্ঠানে তা তুলে ধরেন আমন্ত্রিত বক্তারা। তুলে ধরেন শিক্ষাক্ষেত্রে বাংলার বহমান ঐতিহ্যের দিকটি।
সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটির (এসএনইউ) আচার্য সত্যম রায়চৌধুরী বলেন, "বাংলার একটা গর্ব করার মতো পরম্পরা আছে। এই রাজ্য হল এমনই একটি রাজ্য যেখানে শিক্ষাকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়।" বাংলার মানুষের কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ এই শিক্ষা তা বোঝাতে এসএনইউ"র আচার্য বলেন, "বাংলা হল এমনই একটি রাজ্য যেখানে ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে মনে করেন তাঁদের সন্তানদের উচ্চ মানের শিক্ষা দেওয়াটা হল তাঁদের জীবনে সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ।" আর এই শিক্ষার প্রসার তখনই সম্ভব যখন রাজ্য সরকারও সদর্থক ভূমিকা পালন করে। এবিষয়টি বোঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, "গত কয়েক বছরে বাংলায় একটি উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। সঠিক এবং সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যকে সামনে রেখে এগিয়ে চলেছে বাংলা। তার জন্য এখানকার পরিবেশ ব্যবসা বা বাণিজ্যের পক্ষে অনুকূল। এমনকী যতটা ভাবা যায় তার থেকেও সহজ।" গোটা বিশ্বের শিক্ষার সম্প্রসারণে এই মুহূর্তে কোন কোন বিষয়গুলি উল্লেখযোগ্য তা বোঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, "বিশ্ব শিক্ষার আঙ্গিনায় আজ পারস্পরিক সহযোগিতা এবং যৌথ প্রচেষ্টা হল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।" রাজ্যে যে শিক্ষাক্ষেত্রে বিনিয়োগের একটা অনুকূল পরিবেশ রয়েছে তার ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, "বিনিয়োগের জন্য এই ধরনের সুবিধা এবং সহযোগিতার পরিবেশ কদাচিৎ পাওয়া যায়।" শিক্ষার প্রসারে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলির ভূমিকা প্রসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন কীভাবে আশির দশকের গোড়ায় চুঁচুড়ায় একটি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে শুরু করে আজ টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপের ক্যাম্পাস গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।
এদিন অ্যাডামাস ইউনিভার্সিটির আচার্য ড.সমিত রায় জোর দেন স্কুলছুট পড়ুয়াদের ওপর। তিনি বলেন, "স্কুলছুট মানেই আমরা ভবিষ্যতের মেধাকে হারাচ্ছি।" ছিলেন জেআইএস গ্রুপের ডিরেক্টর সিমরপ্রীত সিং এবং সিকম স্কিল ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান অনিশ চক্রবর্তী। ভার্চুয়ালি সভায় যোগ দেন শুলোনি ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও উপাচার্য অতুল খোসলা। সঞ্চালনায় ছিলেন প্রাইস ওয়াটার কুপার্সের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর রমাপ্রসাদ ঘোষ। সকলেই একমত হন এগিয়ে থাকা বাংলাই শিক্ষাক্ষেত্রে বিনিয়োগের আদর্শ স্থান।



বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর

Kolkata Airport: ‌আধ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকবে কলকাতা বিমানবন্দর...

Kunal Ghosh: কুণাল ঘোষকে ফোন সুদীপের, সন্ধ্যায় চায়ের আমন্ত্রণ ...

কলকাতার স্কুল-কলেজই এখন বাড়ি কেন্দ্রীয় বাহিনীর, সিলেবাস শেষ করতে ভরসা অনলাইন ক্লাস...

জেভিয়ার্সে আলোচনাসভা

ECI: রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে বৈঠক জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চর, একদিনে ভোট চাইল তৃণমূল ...

Mamata Banerjee: দলের মতোই ঘরেও, পরবর্তী প্রজন্মে পরিবার আগলে রাখেন অভিষেক...

মঙ্গল রাতেই কলকাতায় মোদি, বুধে সভা করবেন বারাসাতে...

Kunal Ghosh: বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা কুণালের, তবে রাখলেন প্রশ্নও...

ক্যান্সার সচেতনতার বার্তায় হিউম্যানিটি লেডিস অন হুইলার ৱ্যালি...

MURDER UD: মদ্যপ সংহতি মারধর করতেন মাকে, সার্থক খুনের তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য...

Kunal Ghosh: সাধারণ সম্পাদক পদ থেকেও ইস্তফা গৃহীত হোক, অনুরোধ কুণালের ...

Kolkata: লেকটাউনে স্কুলের পাশ থেকে উদ্ধার শিশুকন্যা, হাসপাতালে মৃত ঘোষণা...

EC: রবিবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ...

ABHISHEK: ব্রিগেডের জনসভার পর আরও ৫ টি জনসভা করবেন অভিষেক ব্যানার্জি...

TMC: মনরেগা নিয়ে তৃণমূলের প্রতিবাদ

সোশ্যাল মিডিয়া