মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

স্কুলের পাঠ্যসূচিতে রামায়ণ, মহাভারত, বেদ অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ

Pallabi Ghosh | ২১ নভেম্বর ২০২৩ ১৬ : ০০


বীরেন ভট্টাচার্য, দিল্লি: জানুয়ারিতে রাম মন্দির উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশব্যাপি হিন্দুত্ত্বের জিগির তোলার পরিকল্পনা রয়েছে বিজেপির। তবে সেখানেই থামছে না গেরুয়া শিবির। এবার স্কুলের পাঠ্যবইয়েও জায়গা করে নিতে চলেছেন রামচন্দ্র। রামায়ণকে সমাজবিজ্ঞানে ভারতের প্রাচীন ইতিহাসে যোগ করার প্রস্তাব দিয়েছে এনসিইআরটির তৈরি করা উচ্চ পর্যায়ের কমিটি। ফলে, স্কুলের পাঠ্য বইয়ে এবার থাকবে রাম রাজত্ব, তাঁর বনবাস সহ রামায়ণের নানা দিক।
ভারতের ইতিহাসকে "ঔপনিবেশিকতা থেকে মুক্ত করা"র প্রস্তাব দিয়েছে এনসিইআরটির কমিটি। তারজন্য দেশের নাম ইন্ডিয়া থেকে বদলে দিয়ে ভারত বলে উল্লেখ করারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। "দেশকে ঔপনিবেশিকতা থেকে মুক্ত করা"র চেষ্টা দীর্ঘদিন ধরেই চালিয়ে যাচ্ছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ এবং বিজেপি। বইয়ের মাধ্যমে আগামী প্রজন্মের সেই মানসিকতা গড়ে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে বলে মত শিক্ষাবিদদের একাংশের। আগামী ২২ জানুয়ারি খুলে যাবে দীর্ঘদিনের প্রতিক্ষিত এবং বিজেপির ইস্তাহারে উল্লেখিত অযোধ্যার রামমন্দির। তারসঙ্গে স্কুল পাঠ্যবইয়ে বিষয়টি যুক্ত হলে বৃত্ত সম্পূর্ণ হবে বলে দাবি বিজেপি নেতৃত্বের। তবে শুধুমাত্র রামায়ণ নয়, মহাভারতকেও ইতিহাস, সমাজবিজ্ঞানের পাঠ্যসূচীর অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ করেছে এনসিইআরটির কমিটি। এই বিষয়ে কমিটির চেয়ারম্যান সিআই আইজ্যাক সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, "বর্তমানে ভারতের যে প্রাচীন ইতিহাস রয়েছে, সেখানে বেশিরভাগই রয়েছে বৈদেশিক আক্রমণের কাহিনী। দুর্ভাগ্যবশত, সেখানে ভারতে অনুপ্রবেশ, শাসন করা, এসব কাহিনীর উল্লেখ করা হয়েছে।" দেশের ইতিহাসকে বিদেশিদের প্রভাব মুক্ত করে দেশের প্রাচীন ইতিহাস তুলে ধরাই এই পদক্ষেপের মূল উদ্দেশ্য বলে দাবি কমিটির। তিনি বলেছেন, "বৈদিক যুগের ইতিহাস পাঠ্যবইয়ে নেই। ভারতের যে স্বর্ণযুগ ছিল, সেই ইতিহাস আমাদের শিশুরা পড়ে না। পাঠ্যসূচিতে রামায়ণ বা মহাভারতের উল্লেখ নেই। আমাদের প্রথম বৈঠকেই আমরা রামায়ণ, রামচন্দ্রের জীবনকাহিনী, উত্তর থেকে দক্ষিণে তাঁর যাত্রা, রামচন্দ্রের শাসনকালে সকলকে ঐক্যবদ্ধ করার কাহিনী আমরা পাঠ্যসূচিতে তুলে ধরার প্রস্তাব করেছিলাম। আমরা কারও মধ্যে বিভেদ করি না। কেন আমরা শুধু বৈদেশিক হামলা, যে সব যুদ্ধে আমরা পরাজিত হয়েছি, সেই সব কাহিনী পড়ব? ভারতের স্বর্ণযুগের কথা কি আমরা তুলে ধরব না?"
এনসিইআরটির কমিটি সমাজবিজ্ঞানকে চারটি ভাগে ভাগ করার প্রস্তাব দিয়েছে। তারমধ্যে রয়েছে প্রাচীন, মধ্যযুগ, ইংরেজ এবং আধুনিক যুগ। সুভাষ চন্দ্র বসু থেকে শুরু করে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের আরও কাহিনী যুক্ত করারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও পাঠ্যসূচীতে বেদকে অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ করা হয়েছে। আয়ুর্বেদের পাঠ্যবই তৈরিও রয়েছে সুপারিশের তালিকায়।



বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর

Kerala: স্ত্রী, তিন নাবালক সন্তানকে খুন করে আত্মঘাতী স্বামী ...

MODI: কিংবদন্তী অভিনেত্রী বৈজয়ন্তীমালার সঙ্গে দেখা করলেন প্রধানমন্ত্রী...

RAHUL GANDHI: প্রধানমন্ত্রী চান জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিয়ে সকলে অভুক্ত অবস্থায় মারা যাক: রাহুল গান্ধী...

DRY ICE: গুরগাঁওতে ‘শুষ্ক বরফ’ খেয়ে রক্তবমি করল ক্রেতারা...

Kerala: অশান্তির জের, তরুণীকে আগুনে পুড়িয়ে খুন করল বন্ধু...

Space Station: মহাকাশে স্পেস স্টেশন বানাচ্ছে ভারত

Supreme Court:‌ ১৫ জুনের মধ্যে খালি করতে হবে দিল্লির দলীয় কার্যালয়, আপকে নির্দেশ শীর্ষ আদালতের...

BJP MP:‌ লোকসভা ভোটের লড়াই থেকে এবার সরে গেলেন বারাবাঙ্কির বিদায়ী বিজেপি সাংসদ ...

Harsh Vardhan: বিজেপির প্রার্থী তালিকায় নাম নেই, রাজনীতি থেকে সরলেন হর্ষ বর্ধন!...

Supriya Sule: নির্বাচনী প্রচারে ব্যাডমিন্টন খেললেন শরদ-কন্যা...

ভারতে বেকারত্বের জন্য দায়ী প্রধানমন্ত্রীই: রাহুল গান্ধী...

শপিং মলে ঘুরতে গিয়ে বিপত্তি, প্রাণ গেল দু'জনের...

KILLS: গাজিয়াবাদে স্ত্রীকে খুন করে দেহ চারদিন ধরে আগলে রাখল স্বামী...

সোশ্যাল মিডিয়া