বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

'কেন্দ্রের বঞ্চনা', বাম থেকে তৃণমূল আমল, সেই ট্র্যাডিশন সমানে চলেছে

Kaushik Roy | ২৯ নভেম্বর ২০২৩ ১৩ : ৩৬


আজকাল ওয়েবডেস্ক: যেন "বঞ্চিতদের ইতিকথা"। একদিকে যখন ধর্মতলায় বঞ্চিতদের নিয়ে বিজেপির সভায় অমিত শাহ ব্যাখ্যা করলেন রাজ্যের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কত সক্রিয় এবং কত টাকা পাঠিয়েছেন ঠিক তখনই বিধানসভায় অম্বেদকরের মূর্তির সামনে কেন্দ্রীয় বঞ্চনার অভিযোগে কালো পোষাক পরে তৃণমূল বিধায়কদের ধর্না কর্মসূচি। যার নেতৃত্বে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। দু"তরফের ইঙ্গিতেই স্পষ্ট আগামী লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে "কেন্দ্রীয় বঞ্চনা" এবং তার পাল্টা জবাবে রাজনীতি সরগরম হয়ে উঠতে চলেছে।
যদি অতীতের দিকে ঘাড় ঘোরানো যায় তবে দেখা যাবে বাম আমলে তৎকালীন কেন্দ্রের কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধেও এই "বঞ্চনা"র অভিযোগ বারবার উঠেছে। সেই সময় কেন্দ্রের বঞ্চনার বিরুদ্ধে দেওয়ালে দেওয়ালে বামেরা রাজ্যের মানুষকে গর্জে ওঠার আহ্বান জানাতেন। এখনও পর্যন্ত লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের জন্য দেওয়াল লেখা শুরু হয়নি বটে কিন্তু এবিষয়টি একেবারেই পরিষ্কার, এবছর গ্রামের ভোটব্যাঙ্ক ধরে রাখতে রাজ্যের শাসকদল এই পথেই হাঁটতে চলেছে। ইতিমধ্যেই তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি নির্দেশ দিয়েছেন, আগামী ২ এবং ৩ ডিসেম্বর বুথে বুথে ১০০ দিনের কাজসহ আবাস যোজনার টাকা নিয়ে কেন্দ্রীয় বঞ্চনার বিরুদ্ধে মিছিল করার।

"বঞ্চনা"র এই ব্যবহার নিয়ে কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, "শব্দটার একটি রাজনৈতিক ব্যবহার চলছেই। এই রাজ্যে কোনওদিন যদি বিজেপিও ক্ষমতায় আসে তবে তারাও সেদিন এই শব্দেরই ব্যবহার করবে বা এটাকে নিয়ে স্লোগান দেবে। আসল কথা হল সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী কেন্দ্র রাজ্যকে টাকা দেওয়া কখনও আটকাতে পারে না এবং সেটা দেওয়াও হয়। কিন্তু সেই টাকা যদি চুরি বা লুট হয় তখন সেটা ঢাকতে এই বঞ্চনার কথাই বলা হয়।" বামেদের আমলে যে বঞ্চনার কথা বলা হতো তার ব্যখ্যায় সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য সায়নদীপ মিত্র বলেন, "রাজ্যে বামেরা যে বঞ্চনার কথা বলত সেটা ছিল মাসুল সমীকরণ নিয়ে বা লাইসেন্স প্রথা নিয়ে রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রের বঞ্চনা। যেটা ছিল একেবারেই বাস্তবের ওপর দাঁড়িয়ে। কিন্তু আজকের পশ্চিমবঙ্গে কেন্দ্রীয় বঞ্চনা হচ্ছে কি হচ্ছে না সেটা তো বিচার করারই সুযোগ নেই। বর্তমান রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় সরকারের বরাদ্দকৃত অর্থ লুট করছে, তার ফলে এটাই বোঝা যাচ্ছে না যে আমরা আমাদের প্রয়োজন অনুযায়ী টাকা পাচ্ছি না কি কেন্দ্র আমাদের বঞ্চিত করছে! অঙ্ক কষাটাই তো মুস্কিল।

কারণ যেটুকু আসছে সেটাও তৃণমূলের নেতারা লুটে নিচ্ছেন। যার পূর্ণ ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় সরকার এই সমস্ত দুর্নীতির অভিযোগের ধুয়ো দিয়ে আমাদের রাজ্যের জনগণের ন্যায্য টাকা দিনের পর দিন আটকে রেখেছে।" সাংবাদিকতা থেকে রাজনীতি এবং তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে সংসদেও প্রতিনিধিত্ব করেছেন কুণাল ঘোষ। বর্তমানে তিনি রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র। "বঞ্চনা" শব্দের প্রয়োগ সম্পর্কে বা অতীত থেকে এখনও পর্যন্ত লাগাতার এর ব্যবহার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "এভাবে কোনও কিছু সরলীকরণ করা যায় না। বাম আমলে এটা ছিল একটা রাজনৈতিক হাতিয়ার। অর্থাৎ রাজনীতি করতে হবে বলেই শব্দটা ব্যবহার করত। কিন্তু তৃণমূল আমলে এই বঞ্চনা আমরা চাক্ষুষ করছি। যেমন ১০০ দিনের কাজ বা আবাস যোজনার টাকা কীভাবে কেন্দ্র আটকে রেখেছে সেটা সকলেই দেখতে পাচ্ছেন। এটা কিন্তু অতীতে কখনও হয়নি। ফলে তৃণমূল যে বঞ্চনার কথা বলছে সেটা একেবারেই সঠিক।"



বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর

'রেডিও ফর চাইল্ড ২০২৪'-এ পুরস্কৃত আকাশবাণী

Television: ৭ দিনের ৭ কাহন, ধারাবাহিকের পর্বে পর্বে কী কী চমক লুকিয়ে?...

Nirapada Sardar: জামিন পেলেন নিরাপদ সর্দার, পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলল হাইকোর্ট ...

Nawsad Siddiqiue: ৭ ঘণ্টা পর লালবাজার থেকে ছাড়া পেলেন নওশাদ সিদ্দিকি...

Kolkata GPO: কলকাতা জি পি ওর ২৫০ বছর

দশ বছর পরেও বাড়বে গুরুত্ব, ভবিষ্যত সুনিশ্চিত করছে জেনেটিক্স...

Corona: ‌করোনায় কলকাতায় মৃত যুবক

খালিস্তানি বিতর্কে এবার রাজ্যের মুখ্যসচিবের দ্বারস্থ শিখ সম্প্রদায়...

Kunal Ghosh: সাত দিনের মধ্যে গ্রেপ্তার হবে শাহজাহান, কুণাল ...

Leela Majumdar: লীলা মজুমদার স্মারক বক্তৃতা

Abhishek Banerjee: বাংলার গর্জন কী, তার একটা ট্রেলর ১০মার্চ: অভিষেক...

TMC: ১০ মার্চ ব্রিগেডে তৃণমূলের 'জনগর্জন সভা'...

Fire: আনন্দপুরের বস্তিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ভস্মীভূত একাধিক ঘর, দোকান ...

জেলাশাসক, পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের ...

পয়লা মার্চ বাংলায় ১০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী...

Trum: জন্মদিনে পথে নামল ৪৮ সালের ট্রাম

KMC: কলকাতা পুরসভার বিশেষ উদ্যোগ

সোশ্যাল মিডিয়া