মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

বাঙালি বিজ্ঞানীর মুকুটে নতুন পালক#রাজ্য

PB | ১৫ অক্টোবর ২০২৩ ০৮ : ০৯


আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রযুক্তিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কান্ডারির ভূমিকায় বাঙালি। বিজ্ঞান চর্চার অন্যতম পথিকৃৎ আমেরিকার প্রখ্যাত সংগঠন ইনস্টিটিউট অফ ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ার্স (আইইইই)র মাইক্রোওয়েভ থিয়োরি অ্যান্ড টেকনোলজি সোসাইটির প্রেসিডেন্ট হলেন রাজ্যের বাসিন্দা এবং নাসার সিনিয়র বিজ্ঞানী ড. গৌতম চট্টোপাধ্যায়। এর আগে আরও দুই ভারতীয় এই পদে বসেছিলেন। ড. গৌতম চট্টোপাধ্যায় হলেন তৃতীয় এবং প্রথম বাঙালি প্রেসিডেন্ট।‌ উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে নাসার জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরিতে সিনিয়র বিজ্ঞানী হিসেবে কর্মরত আছেন গৌতম। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকায় এখনও পর্যন্ত তাঁর ৩৫০টিরও বেশি লেখা প্রকাশিত হয়েছে। বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে অন্যান্য পুরস্কারের সঙ্গে এবছরেই তিনি পেয়েছেন নাসা-জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরিজ পুরস্কার। 
গোটা বিশ্বে আইইইইর সদস্য সংখ্যা হল প্রায় ৫ লক্ষ। সংগঠনটির ৪০টি আলাদা সোসাইটি আছে।‌ প্রত্যেক সোসাইটি আলাদা আলাদা করে বিজ্ঞানের নানা দিক যেমন ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ক্ষেত্রে প্রযুক্তির উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। এদের মধ্যে অন্যতম পুরনো হল মাইক্রোওয়েভ থিয়োরি অ্যান্ড টেকনোলজি (এমটিটি) সোসাইটি। যারা মাইক্রোওয়েভ, মিলিমিটার-ওয়েভ, টেকনোহার্টজ টেকনোলজি‌ নিয়ে কাজ করছে। যেগুলি 5g বা 6gর অন্তর্ভুক্ত বা তারও ওপরে। প্রযুক্তি উন্নয়নে যারা কাজ করছেন তাঁদেরকে সঠিক দিশা দেখানো বা এককথায় বলতে গেলে একজন গবেষক ও উৎপাদনকারীর কী ধরনের জিনিস মাথায় রেখে এগিয়ে যাওয়া উচিত তা সম্পর্কে সম্যক ধারণা তৈরি করাই এই সোসাইটির লক্ষ্য। 
দায়িত্ব নেওয়ার পর এই বাঙালি বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, আমার লক্ষ্য হল বিজ্ঞানী ও ইঞ্জিনিয়াদের উৎসাহ দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। যাতে মাইক্রোওয়েভ প্রযুক্তিকে পরিবেশ পরিবর্তন এবং তার প্রভাবের ক্ষেত্রে কাজে লাগানো যায়। এর পাশাপাশি সদস্য সংখ্যা বাড়ানো ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে এশিয়া বিশেষত ভারতীয় উপমহাদেশগুলির সঙ্গে আফ্রিকা এবং মধ্য প্রাচ্যও যাতে আরও এগিয়ে আসে সেই প্রচেষ্টাও থাকবে।



বিশেষ খবর

নানান খবর

Advertise with us

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া