অমিতকুমার ঘোষ,কৃষ্ণনগর: জগদ্ধাত্রী পুজো উপলক্ষে বর্ণাঢ্য ঘট বিসর্জনের শোভাযাত্রা দেখতে মানুষের ঢল নামে কৃষ্ণনগরে। কৃষ্ণনগরের প্রথা অনুযায়ী ঘট বিসর্জন শুরু হয় বৃহস্পতিবার দুপুরে। এবার কলকাতার পুজো কার্নিভালের কায়দায় এখানে ঘট বিসর্জনের শোভাযাত্রা হয়। শুধু কৃষ্ণনগরই নয়, রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চল থেকেও বহু মানুষ এই শোভাযাত্রা দেখতে এখানে হাজির হয়েছিলেন।
কার্নিভালে নানা ধরনের ট্যাবলো, গান, বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের ঝঙ্কার, আদিবাসী নাচ ছিল চোখে পড়ার মতো। এবার ট্যাবলোর বিষয় নির্বাচনে প্রত্যাশিতভাবেই গুরুত্ব পেয়েছে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ নিষিদ্ধকরণ, জল সংরক্ষণ, গাছ কাটা বন্ধ করা, গাছ লাগানো ইত্যাদি। বর্তমান সময়ে এই বিষয়গুলিই বিভিন্ন মহলে আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে। কৃষ্ণনগর পুরসভা সম্প্রতি প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ নিষিদ্ধ করেছে। এনিয়ে পুরসভা একাধিক পদক্ষেপও করেছে। অনেক জায়গায় তল্লাশি চালিয়ে প্রচুর প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সব পুজো কমিটি এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়েছে।
এর বাইরে সৌরভ গাঙ্গুলির বোর্ড সভাপতি হওয়া, অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নোবেল পুরস্কার পাওয়া, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, ভারতের চন্দ্রাভিযান ইত্যাদিও ট্যাবলোর মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ঘট বিসর্জনের ওপরে পুরস্কার প্রদান করে প্রশাসন ও নানা সংস্থা। সেই কারণেই ট্যাবলোর বিষয় নির্বাচনে অনেকেই চমক দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। এদিন দুপুরে চলে ঘট বিসর্জনের শোভাযাত্রা। বহু পুজো এই বিসর্জনে অংশ নেয়। তাই শোভাযাত্রার গতি ছিল মন্থর। শোভাযাত্রা শেষ হতে বিকেল হয়ে যায়। ঘট বিসর্জনের পর সন্ধের সময় শুরু হয় প্রতিমা বিসর্জন। বিসর্জন চলবে শুক্রবারও।

পাল্কিতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ঘট। ছবি:‌ প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top