আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ২১ জানুয়ারি অর্থাৎ আগামী বৃহস্পতিবার নতুন দল ঘোষণা করতে পারেন ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি। আপাতত সে দিকেই তাকিয়ে গোটা রাজনৈতিক মহল। রাজ্যের মুসলিম, দলিত, আদিবাসী নেতাদের এক ছাতার তলায় এনে একুশের ভোটযুদ্ধের জন্য নিজের ফ্রন্টের বিষয়ে ওইদিন ঘোষণা করবেন তিনি, জানালেন। বলেন, ‘‌বাংলার দলিত, আদিবাসীদের প্রতিনিধিরাও সম্প্রতি দেখা করে গেছেন। বেশকিছু রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গেও আলোচনা হয়েছে। একুশের নির্বাচনে অন্তত ৬০–৮০টি আসনে লড়ার পরিকল্পনা করেছি।’‌ 
দিন পনেরো আগে বঙ্গ সফরে এসে আব্বাসের সঙ্গে বৈঠক করে গিয়েছেন অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলমিন’ (এআইএমআইএম) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। বৈঠকের পর তিনি জানিয়ে গিয়েছেন, বাংলায় আব্বাসের সঙ্গে তাল মিলিয়েই চলবে তাঁর দল। যার ফলে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক নিয়ে ইতিমধ্যেই বেশ চিন্তায় শাসক শিবির। সিদ্দিকির বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মহলের অভিযোগ, বিহারের মতো বাংলাতেই বিজেপির সুবিধা করে দিতে সংখ্যালঘু ভোটে কোপ দিতে চাইছেন ওয়াইসি। আর তাঁর সঙ্গেই হাত মিলিয়েছেন সিদ্দিকি। যদিও এই অভিযোগ খারিজ করেছেন ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা। বলেন, ‘‌২০১৯–এর লোকসভার সময়েই রাজনীতির ময়দানে নামতে চাইনি। সেখানে বিজেপি ১৮টি আসন পেয়েছে। তৃণমূল বাংলায় ক্ষমতায় থাকার পরও কী করে এই ঘটনা ঘটে?‌ রাজ্যে বাম–জমানায় ধোপে টেকেনি বিজেপি। তৃণমূলকে ভোট দিয়ে আমাদের ক্ষতিই হয়েছে।’‌ 
জোটের ব্যাপারে তৃণমূলের সঙ্গে কথা হয়েছে কি না, সে ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানান, ‘‌আমাদের দাবি–দাওয়া তৃণমূলের কিছু নেতাকে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও কোনও উত্তর পাইনি। অন্য রাজনৈতিক দলের নেতারাও যোগাযোগ রাখছেন। কিন্তু এখনও কিছুই ঠিক হয়নি। নিজেদের দল গড়ার কথাই ভাবছি। দেখা যাক কী হয়!‌’‌   

জনপ্রিয়

Back To Top