সংবাদ সংস্থা, নটিংহ্যাম: হার্দিক পান্ডিয়ার পরামর্শেই অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে সংযমী ব্যাটিং করেছিলেন বিরাট কোহলি। জল্পনা নয়, এমনটা নিজেই স্বীকার করে নিয়েছেন বিরাট।
অসিদের বিরুদ্ধে তাঁর ৭৭ বলে ৮২ রানের ইনিংসে মাত্র চারটি বাউন্ডারি ও দুটি ৬ মেরেছিলেন বিরাট। অথচ, উল্টোদিকে থাকা হার্দিক ২৫ বলে ৪৮ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছিলেন। হার্দিককে দেখে কি সেই রাস্তায় হাঁটতে ইচ্ছে করেনি?‌ জবাবে বিরাট বলেন, ‘‌ভাবনাটা মাথায় এসেছিল ৫০ করে ফেলার পর। তখন হার্দিকের সঙ্গে আলোচনায় ও বলেছিল, অহেতুক ঝুঁকি নেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই।’‌ এমনকী সেদিন অধিনায়ককে উইকেট আঁকড়ে পড়ে থাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন হার্দিক। বিরাটের কথায়, ‘‌উল্টে হার্দিক বলেছিল উইকেটের অন্যদিক থেকে তুমি আমাকে নিজের স্বাভাবিক খেলা চালিয়ে যাওয়ার নিশ্চয়তা দাও। সে জন্যই আমি দায়িত্ব নিয়ে একদিক আগলে রেখেছিলাম।’‌
অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে একসময় মনে হচ্ছিল তাঁর ব্যাট থেকে আবারও সেঞ্চুরি আসছে। অথচ, শেষবেলায় কেমন ছন্দহীন মনে হচ্ছিল বিরাটকে। সে কথা কার্যত স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, ‘‌শেষ পাঁচ–ছয় ওভারে আমি বড় জোর ৬টা বল খেলেছিলাম। মনে আছে তিন ওভার পর একটা বল খেলেছিলাম, সেটাও সিঙ্গল নিই। এত কম ব্যাট করার সুযোগ পেলে ব্যাটসম্যানের ছন্দ পেতে সমস্যা হয়। বিশেষ করে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে। সেটাই হয়েছিল।’‌
এজন্য অবশ্য অধিনায়কের চ্যাম্পিয়ন ইগোয় আঘাত লাগে না বিরাটের। বরং তিনি অবলীলায় বলে দেন, ‘‌হার্দিক, ধোনির মতো ক্রিকেটাররা ওভাবে ব্যাট করলে উইকেটের একদিক ধরে রেখে খুচরো রান নিয়ে দায়িত্ব পালনে আমার কোনও সমস্যা নেই। যখন ব্যাট করার সুযোগ পাব, দলের স্বার্থে খুচরো রান নিয়ে দান ছেড়ে দেব। সেদিন আলোচনায় আমরা এটাই ঠিক করেছিলাম।’‌
কেন এই সিদ্ধান্ত, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন বিরাট। তাঁর কথায়, ‘‌কোনও ব্যাটসম্যান নির্দিষ্ট স্ট্রাইক রেটে ঝোড়ো ব্যাট করলে, অন্যজনকে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। কারণ, ওই সময় উইকেট পড়তে শুরু করলে দেখা যাবে শেষপর্যন্ত হয়তো ২০ রান কম উঠল।’‌ মিডল অর্ডারের থেকে দল কী চাইছে, সেটা তাঁদের কাছে স্পষ্ট করা আছে। খেলোয়াড়রাও সেটা জানে বলে দাবি করেন বিরাট। বলেন, ‘‌কোন পরিস্থিতিতে কাকে ব্যাট করতে নামানো হবে, কীভাবে খেললে বেশি রান উঠবে, সেটা নিয়ে দলের মধ্যে স্পষ্ট ধারণা রয়েছে। আমরা সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলেছি এবং প্রত্যেকে নিজের দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেছে।’‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top