আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাতেও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত আনতে সক্ষম অগ্নি–২ মিসাইল। শনিবার রাতে এই মিসাইলের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়। প্রথমবারই রাতের পরীক্ষাতে সফল এই মিসাইল। ১৫০০ কিমির দূরত্ব থেকে লক্ষ্যবস্তুকে চূর্ণবিচূর্ণ করতে পারবে পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম অগ্নি–২। ওড়িশা উপকূলের বালেশ্বরে, ডক্টর আবদুল কালাম দ্বীপ থেকে অগ্নিপরীক্ষায় উত্তীর্ণ হল পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম এই ব্যালেস্টিক মিসাইলটি। অগ্নি ২–এর এই সাফল্যে খুশি ভারতীয় সেনাবাহিনী।
পরীক্ষা সফল হয়েছে কি না তা জানার জন্য বঙ্গোপসাগরের যেখানে লক্ষ্যবস্তু ছিল সেখানে রেডারস, টেলিমেট্রি অবজারভেশন স্টেশন, ইলেকট্রো–অপটিক ইনস্ট্রুমেন্ট এবং নৌসেনার দুটি জাহাজের মাধ্যমে নজর রাখা হচ্ছিল। ডিআরডিও সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০ মিটার দীর্ঘ এই ব্যালেস্টিক মিসাইলের এক একটির ওজন ১৭ টন। ১০০০ কেজি পর্যন্ত কোনও অস্ত্র বা বিস্ফোরক বহনে সক্ষম। ২০০০ কিমি দূরের টার্গেটকে আঘাত করতে পারবে।
ইতিমধ্যেই সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে অগ্নি–২ মিসাইল৷ দিনের বিভিন্ন সময় লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে কি না, তা নিয়ে পরীক্ষা চলছে৷ এই প্রথম রাতে অগ্নি–২ মিসাইলের পরীক্ষা হল৷ অগ্নিপরীক্ষার পর কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০০০ কিলোমিটার পাল্লার শক্তিশালী এই মিসাইলটি রাতে কার্যকরী কি না তা নিয়ে একটা সংশয় ছিল। আজকের পরীক্ষার সাফল্যে প্রমাণিত হল রাতের অন্ধকারেও সমান কার্যকরী মারাত্মক এই মিসাইলটি।

জনপ্রিয়

Back To Top