আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মমতা ব্যানার্জির পর অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আর এক বিজেপি বিরোধী দল নিজেদের নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্ব তুলে দিল ভোটকৌশলী প্রশান্ত কিশোরের হাতে। আগামী বছর দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমি পার্টির হয়ে কাজ করবে প্রশান্তের সংস্থা আইপ্যাক। শনিবার একথা ঘোষণা করেছেন খোদ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। আই প্যাকের তরফেও ঘোষণা করা হয়েছে নতুন চুক্তির কথা।
শনিবার টুইট করে কেজরিওয়াল জানান, ‘‌আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি, আইপ্যাক এবার আমাদের জন্য কাজ করবে। স্বাগতম আইপ্যাক।’‌ পাল্টা টুইট করা হয় আইপ্যাকের তরফেও। তাঁরা জানায় ‘‌পাঞ্জাবে কাজ করার সময় আমরা বুঝতে পেরেছি, আপনার চেয়ে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী হতেই পারে না। আপনার সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমরাও খুশি।’‌ 
জাতীয় রাজনীতি থেকে নিজেকে অনেকটাই দূরে রেখেছেন কেজরিওয়াল। আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে আপাতত দিল্লিই তাঁর ধ্যানজ্ঞান। বিধানসভায় এবারে কেজরির জন্য শক্ত গাঁট হতে পারে বিজেপি। আবার কংগ্রেস পৃথকভাবে লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই কংগ্রেস কেমন ভোট কাটবে সে অঙ্কও ভাবাচ্ছে আম আদমি পার্টিকে। এসবের মধ্যেই দেশের সবচেয়ে সফল রাজনৈতিক পরামর্শদাতাকে নিজেদের প্রচারের দায়িত্ব দিয়ে দিল আপ।
অতীতে সফলভাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপির হয়ে কাজ করেছেন প্রশান্ত কিশোর। সফলভাবে কাজ করেছেন নীতীশ কুমারের সঙ্গেও। পাঞ্জাবে কংগ্রেসকে ক্ষমতায় ফিরিয়েছেন প্রশান্ত। এবার কেজরিওয়ালের হয়েও কাজ করবেন প্রশান্ত।   
এদিকে লাগাতার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা করায় এবার বিপাকে পড়তে পারেন জেডিইউ নেতা প্রশান্ত কিশোর। শোকজ করার পর খোদ নীতীশ কুমার তাঁকে জরুরি তলব করেছেন। আজই প্রশান্তের সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা নীতীশ কুমারের। তারপরই জেডিইউতে ভোটকৌশলীর ভবিষ্যৎ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়ে যাবে। অনেকে মনে করছেন এবার পাকাপাকিভাবে প্রশান্তের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টানতে পারেন নীতীশ। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top