আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসনের জন্য রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারির সুপারিশ মঙ্গলবার দুপুরে অনুমোদন করেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। আজ রাত ৮.‌৩০ মিনিট পর্যন্ত রাজ্যের তৃতীয় বৃহত্তম দল এনসিপি–কে সরকার গঠনের জন্য নিজেদের সংখাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করার সময় দিয়েছিলেন রাজ্যপাল। কিন্তু তার আগেই এই ঘটনায়, রাজ্যপালের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে শিবসেনা। একইসঙ্গে এনসিপি এবং কংগ্রেসের সমর্থনের চিঠি জোগারের জন্য আরও কিছুটা সময় দাবি করেছে তারা। এনসিপি সাফ বলেছে, তিনটি দল ঐক্যমত না হলে সরকার গঠন অসম্ভব।
রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলির টানাপোড়েন অব্যাহত। এনসিপি নেতা অজিত পাওয়ার সরকার গঠনে দেরির জন্য শরিকদল কংগ্রেসকে ঠুকে বলেছেন, ‘‌কংগ্রেসের সমর্থনের চিঠির জন্য শারদ পাওয়ার সোমবার সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭.‌৩০টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেছিলেন।’‌ জবাবে কংগ্রেস নেতা সুশীল শিন্ডে বলেছেন, ‘‌কংগ্রেস মোটেও দেরি করছে না। আমরা এনসিপিকে বলেছি ওরা রাজ্যপালকে চিঠি দিয়েছে কিনা। আস্তে আস্তেই সব হবে। ওরা আমাদের শরিক। যাই সিদ্ধান্ত হোক, সর্বসম্মতভাবেই হবে।’‌ আরেক কংগ্রেস নেতা পৃথ্বীরাজ চহ্বাণ শিবসেনা আর বিজেপিকে কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘‌দুই শয়তানের মধ্যে যে কম শয়তান তাকেই পছন্দ করতে হবে আমাদের।’
এনসিপি জানিয়ে দিয়েছে কংগ্রেসের সমর্থন পেলেই তারা শিবসেনার সঙ্গে কথা বলতে যাবে।

শিবসেনাকে মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তেও রাজি এনসিপি। কিন্তু কংগ্রেস চাইছে শিবসেনা সমর্থন করলেও মুখ্যমন্ত্রী হোক এনসিপি থেকে। এরইমধ্যে কংগ্রেস নেতা কেসি বেণুগোপাল টুইটারে জানালেন, দুপুরে শারদ পাওয়ারের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন কংগ্রেসের অন্তর্বর্তী সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। পাওয়ারের সঙ্গে আরও আলোচনা চালিয়ে যেতে তিনি মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং আহমেদ প্যাটেলকে দায়িত্বও দিয়েছেন। মল্লিকার্জুন আবার এদিন বলেছেন, ‘‌এনসিপি–কংগ্রেসের ভোটের আগেই জোট ছিল। যৌথভাবে আলোচনার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এনসিপির সঙ্গে আমরা কথা চালাচ্ছি। ওদের সঙ্গে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলেই পরবর্তী পদক্ষেপ করব।’
এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার এদিন সকালে লীলাবতী হাসপাতালে অসুস্থ শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতকে দেখতে যান। তার আগে পাওয়ার এদিন জোটশরিক কংগ্রেসের সঙ্গে হতে চলা বৈঠক নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, তিনি এধরনের কোনও বৈঠকের কথা জানেন না। তবে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়তে দেরি হওয়ার কারণ নিয়ে তিনি অবশ্যই কংগ্রেসের সঙ্গে কথা বলবেন।
এআইএমআইএম সুপ্রিমো আসাদুদ্দিন ওয়াইসি আবার কংগ্রেসের পাশে দাঁড়িয়ে বলেছেন, কংগ্রেস ঠিক কাজই করেছে। শিবসেনা নেতৃত্বাধীন বা বিজেপি নেতৃত্বাধীন কোনও সরকারকেই সমর্থন করা উচিত নয়। কিন্তু এখন যদি কংগ্রেস–এনসিপি জোট শিবসেনাকে সমর্থন করে তাহলে মানুষ বুঝতে পারবে কারা কাজের ভোট কেটেছে, কটাক্ষ ওয়াইসির।
ছবি:‌ এএনআই  

জনপ্রিয়

Back To Top