আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যোগী রাজ্যে এবার সিএএ বিক্ষোভকারীদের উপর অভিনব কায়দায় দমনপীড়ন। লখনউ–এর ঐতিহাসিক ঘড়িঘরের সামনে অবস্থানে বসা ৫০ জন মহিলা বিক্ষোভকারীর কম্বল এবং খাবারের প্যাকেট নিয়ে পালিয়ে গেল পুলিস। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে। শুক্রবার রাত থেকে সেখানে অবস্থান বিক্ষোভ করছিলেন ওই  মহিলারা। তাঁদের সঙ্গে তাঁদের সন্তানরাও ছিল। উত্তর প্রদেশের কনকনে ঠান্ডায় সবাই লেপ, কম্বল নিয়ে রাত জাগছিলেন। তাঁদের বিপদে ফেলতেই এই কাজ করেছে পুলিস বলে অভিযোগ আন্দোলনকারীদের। রবিবার লখনউ পুলিস সাফাই গেয়ে বিবৃতি দিয়েছে, ‘‌ঘড়িঘরের সামনে অবৈধভাবে প্রতিবাদ দেখাচ্ছিলেন কয়েকজন। বিনা অনুমতিতেই তাঁবু খাটানোর চেষ্টা করছিলেন। সেখানে কয়েকজন কম্বল বিতরণ করছিলেন এবং যাঁরা বিক্ষোভকারী নন, তাঁদের মধ্যেও অনেকে সেই কম্বল নিতে এসেছিলেন।

আমাদের বাধ্য হয়ে সেই ভিড় সরিয়ে দিয়েছি এবং কম্বল বাজেয়াপ্ত করেছি। দয়া করে এনিয়ে কোনও গুজব ছাড়াবেন না।’‌
‌এদিকে পুলিস কম্বল, খাবার কেড়ে নিলেও অবসস্থআন বিক্ষোভ থেকে সরেননি লখনউ–এর আন্দোলনরত মহিলারা। রবিবার সকাল থেকে ফের চলছে সিএএ–এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভ। আলিগড়ে এদিন ১৪৪ ধারা অমান্য করে বিক্ষোভ দেখানোর জন্য ৬০ জন মহিলার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিস।
পুলিসকর্মীদের কম্বল এবং প্যাকেট নিয়ে পালানোর ছবি মোবাইলফোনে তুলে সেটা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেছেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত মানুষরা। এক মহিলা বিক্ষোভকারীকে প্রশ্ন করতেও শোনা যায় কেন পুলিসরা কম্বল এবং খাবার নিয়ে যাচ্ছে। ওই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই ফের দেশজুড়ে আবার ধিক্কৃত হচ্ছে যোগীর পুলিস প্রশাসন।
ছবি:‌ এএনআই, লেটেস্টলি 

জনপ্রিয়

Back To Top