আজকাল ওয়েবডেস্ক: অতিমারীর পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলোয় দুঃসময় চলছে। সাধারণ শয্যা নেই, ভেন্টিলেটরের অভাব, আইসিইউ, সিসিইউতে জায়গা নেই। পরিস্থিতি এমন হয়েছে, রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করানোই মুশকিল। ভর্তি করানোর জন্য নানাবিধ প্রমাণপত্র দেখাতে হচ্ছে রোগীর পরিবারদের। এবার এই সমস্যার অবসান ঘটাতে নয়া নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। অসুস্থ ব্যক্তির যাতে দ্রুত চিকিৎসা হয়, নজর দেওয়া হল সেদিকেই। কী বলছে নির্দেশিকা?
এক, কোভিড হেলথ ফ্যাকাল্টিতে ভর্তি হতে গেলে কোভিড পজিটিভ হওয়ার রিপোর্ট দেখানো বাধ্যতামূলক নয়। কোভিড সন্দেহ হলে তাঁকে অবস্থা অনুযায়ী সিসিসি, ডিসিএইচসি কিংবা ডিএইচসি ওয়ার্ডে ভর্তি করা যাবে। 
দুই, কোনও রোগীকে ফেরাতে পারবে না হাসপাতাল। রোগী অন্য শহরের বাসিন্দা হলেও তাঁকে অক্সিজেন এবং প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র দিতেই হবে। 
তিন, যেখানকার হাসপাতাল সেখানকার বাসিন্দা হওয়ার প্রমাণপত্র বা পরিচয় পত্র না দেখাতে না পারলেও কোনও রোগীকে ফেরাতে পারবে না হাসপাতাল।
চার, প্রয়োজন অনুযায়ী ভর্তি নিতে হবে। হাসপাতালের প্রয়োজন নেই এমন কেউ বেড অধিকার করে রেখেছে এমন যেন না হয় তা দেখতে হবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টিও স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ডিসচার্জ গাইডলাইন দেখে করতে হবে। 
এদিকে করোনায় মৃতের দেহ সৎকার নিয়ে নতুন নিয়ম জারি করল রাজ্য। মৃতের দেহ বাড়ি নিয়ে যেতে পারবে না পরিবার তবে হাসপাতাল থেকে সরাসরি শ্মশানে নিয়ে যাওয়া যাবে। সৎকারের সমস্ত প্রক্রিয়াটি দেখভাল করবেন নোডাল অফিসার।       
 

জনপ্রিয়

Back To Top