আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কাজে দেরি করে এসেছিলেন। যার জন্য শোকজ নোটিস ধরানো হয়েছিল। তিনদিনের মধ্যে জবাব চাওয়া হয়েছিল। পুলিশ কনস্টেবল এমন জবাব দিয়েছেন নিজের উর্ধ্বতন অফিসারকে। যে চাকরি থেকেই বরখাস্ত হতে হল সেই কনস্টেবলকে। 
বেঙ্গালুরুর জয়নগর পুলিশ স্টেশনের ঘটনা। গত ১১ এপ্রিল থানার দায়িত্বে থাকা অফিসার ইয়েরাস্বামী পাঁচ কনস্টেবলকে শোকজ করেছিলেন। যার মধ্যে ছিলেন শ্রীধর গৌড়া। প্রত্যেকের বিরুদ্ধেই দেরি করে কাজে আসার অভিযোগ ছিল। তিনদিন পর শোকজের জবাব দেন শ্রীধর। যেখানে তিনি অফিসারকে উদ্দেশ্য করে লেখেন, ‘‌প্রতিদিন যদি তিনবেলা হোটেলে খাওয়াদাওয়া করে থানায় এসে শুয়ে পড়তাম। তাহলে সকাল আটটায় কাজে যোগ দিতে পারতাম।’‌ তিনি শোকজের জবাবে আরও বলেছেন, ‘‌বাড়িতে অসুস্থ মা–বাবা রয়েছে। তাঁদের দেখাশোনা করতে হয়।’‌ কিন্তু শ্রীধরের জবাবে সন্তুষ্ট হননি অফিসার। তিনি বুঝতে পেরে যান, তাঁকে উদ্দেশ্য করেই এই কথা লেখা হয়েছে। এরপরই বরখাস্ত করা হয় শ্রীধরকে। যদিও বেঙ্গালুরুর ডেপুটি পুলিশ কমিশনার কে আন্নামালাই বলেছেন, ‘‌ওই কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে খারাপ আচরণের জন্য। শোকজের কড়া জবাব দেওয়ার জন্য নয়। আগেও বরখাস্ত করা হয়েছিল শ্রীধরকে। অফিসার ইয়েরাস্বামী যথেষ্ট দায়িত্ববান। তাঁর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলেছে শ্রীধর। এমনকি মিডিয়ার সামনেও নিজের বক্তব্য জানিয়েছে।’‌ 
এটা ঘটনা কনস্টেবলটি শোকজের চিঠি মিডিয়ার সামনে তুলে ধরেছিলেন। তিনি যে জবাব দিয়েছেন, তা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেন। সেই চিঠি ভাইরাল হয়ে গেছে। যা নজরে এসেছে অফিসার ইয়েরাস্বামীরও। এরপরই শ্রীধরকে বরখাস্ত করা হয়। 

জনপ্রিয়

Back To Top