আজকাল ওয়েবডেস্ক: বিশ্বজুড়ে ব্যাপক ত্রাস সৃষ্টি করল চিনা টিকা। দুটি ডোজ নেওয়ার পরেও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ! চিনে তৈরি সিনোভ‌্যাক ও সিনোফার্মকে ছাড়পত্র দিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তারপরেই চিন থেকে গোটা বিশ্বের ৮০ টি দেশে রপ্তানি করা হয়েছিল এই টিকা। কিন্তু এই টিকা নেওয়ার পরেও হু হু করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায়, টিকার মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সৌদি আরব, বাহরিন, ফিলিপিনসের মতো দেশ। সম্প্রতি পূর্ব আফ্রিকার দেশ সিচেলসে নতুন করে ৩৭ শতাংশ নাগরিকের করোনা সংক্রমণের খোঁজ মিলেছে। সকলেই জানান, তাঁরা চিনা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নিয়েছিলেন। এমনকি ফিলিপিনসের প্রেসিডেন্ট রড্রিগো দুতের্তে চিনা ভ্যাকসিনের জোগান দেওয়ায় দেশবাসীর কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন। তথ্য ফাঁস হতেই ফিলিপিনসের মানুষ চিনা ভ্যাকসিন নিতে স্পষ্ট না জানিয়েছেন। সম্প্রতি আমিরশাহি ও বাহরিনে করোনার ঢেউ আছড়ে পড়েছে। এই দেশগুলোতেও চিনা ভ্যাকসিন সিনোফার্ম নিয়েছিলেন বহু নাগরিক। সৌদি আরব ও ভারত সরকার শুরুতেই চিনা ভ্যাকসিন প্রয়োগে অনুমতি দেয়নি। মডার্না, ফাইজার, কোভিশিল্ড, জনসন অ‌্যান্ড জনসনের তৈরি ভ‌্যাকসিনই একমাত্র দেওয়া হচ্ছে সৌদিতে। এই ভ্যাকসিন ছাড়া অন্য ভ্যাকসিনের ডোজ নিলে, তাঁদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে চিনা ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে সন্দেহ থাকায় ভারত সরকারের তরফ থেকেও না জানানো হয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top