আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আবহাওয়া পরিবর্তন ও বিশ্ব উষ্ণায়ন এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বের জন্য একটি বিরাট সমস্যা। আবহাওয়া পরিবর্তন আগামী দিনগুলিতে খাদ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে ভয়ঙ্কর প্রভাব ফেলতে পারে। রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি নতুন রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে পৃথিবীতে খাদ্য উৎপাদনের হার অনেকটাই কমে যাবে। পরিসংখ্যান থেকে জানা যাচ্ছে, খাদ্যের চাহিদা প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়ে যাবে তখন। আর উৎপাদন কমে যাবে প্রায় ৩০ শতাংশ। রাষ্ট্রপু্ঞ্জের প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল বান কি মুন পরিচালিত ‘‌দ্য গ্লোবাল কমিশন ‌অন অ্যাডাপ্টেশন’‌ বা জিসিএ জানাচ্ছে, আগামী দিনে ভয়ঙ্কর খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হতে চলেছে গোটা বিশ্ব। ‘‌দ্য গ্লোবাল কমিশন ‌অন অ্যাডাপ্টেশন’‌–এর ১৯টি দেশের মধ্যে রয়েছে ভারতও। এই সংস্থার ভারতীয় কমিশনার পরিবেশ সচিব সিকে মিশ্র। 
জিসিএ–এর রিপোর্ট জানাচ্ছে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গোটা পৃথিবী জুড়ে চাষ আবাদের বহু জমির উর্বরতা নষ্ট হবে। উৎপাদন ক্ষমতা হারাবে। তৈরি হবে মরুভূমি। খাদ্য সংকটের ফলে দেখা দেবে বৈষম্য। ফলে মনুস্য সমাজের বিভিন্ন প্রজাতি অবলুপ্তির দিকে এগিয়ে যাবে। 
রিপোর্ট পেশ করার সময়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের আধিকারিক ইব্রাহিম থিয় জানিয়েছেন, ‘‌২০৫০ সালে ১০০ কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদার জন্য আরও ৫০ শতাংশ বেশি খাদ্যের উৎপাদন প্রয়োজন। যেহেতু আমরা আবহাওয়া পরিবর্তন রুখতে ব্যর্থ হচ্ছি, সেক্ষেত্রে কৃষি বিষয়ক গবেষণাকে আরো উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে আমাদের। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও আর্থিক সাহায্যের মাধ্যমে কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে হবে যাঁরা আবহাওয়া পরিবর্তনের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।’‌     

জনপ্রিয়

Back To Top