‌সংবাদ সংস্থা, ওয়াশিংটন: চীন, ভারতের মতো বড় দেশগুলোর তুলনায় কোভিড নিয়ন্ত্রণে আমেরিকা খুব ভাল কাজ করছে। দাবি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। বলেন, চীনে বিরাটভাবে ফিরে এসেছে সমস্যা, আর ভারত তো সাঙ্ঘাতিক সমস্যায় আছে।   
আমেরিকায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৪৮ লক্ষের ওপর। মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৫৮ হাজারের ওপর। ভারতে সংক্রমিত ১৮ লক্ষ ৫৫ হাজারের ওপর, মৃত প্রায় ৩৯ হাজার। চীনে গোড়ায় বাড়াবাড়ি ঘটলেও আমেরিকার ধারেকাছে পোঁছোয়নি তা। আর অবস্থাটাও নিয়ন্ত্রণে এসে যায়। তবে এই মুহূর্তে নতুন করে কিছু সংক্রমণ ধরা পড়ছে। মঙ্গলবার সংক্রমিত হয়েছেন ৩৬ জন। আগের দিন সংখ্যাটা ছিল ৪৩ জন। পরিসংখ্যান যেমনই হোক, সাংবাদিক–সম্মেলনে ট্রাম্প দাবি করেন, ‘আমি মনে করি আমরা খুব ভাল কাজ করছি। যে কোনও দেশের সমান ভাল করেছি আমরা।’‌ একই সঙ্গে তিনি মনে করিয়ে দেন যে,আমেরিকা অনেক বড় দেশ। এরপর তুলনা করেন অন্য দুই বড় দেশ চীন এবং ভারতের সঙ্গে। বলেন, ‌‘‌চীনে এই মুহূর্তে বিরাটভাবে ফিরে এসেছে সংক্রমণ। ভারতে তো সাঙ্ঘাতিক সমস্যা।’‌ আমেরিকায় ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা চলছে মহামারীর মোকাবিলা নিয়ে। সামনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এর মূল্য দিতে হতে পারে। এ সময় নিজের পিঠ চাপড়াতে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘‌অনেক দেশ ভেবেছিল সংক্রমণ শেষ হয়ে গেছে। অথচ সেসব দেশে করোনা নতুন করে ফিরে আসছে। আমরাও ভেবেছিলাম ফ্লোরিডায় সংক্রমণ শেষ হয়ে গেছে। ওখানেও হঠাৎ করে ভাইরাস ফিরে এসেছে। দেখাই যাচ্ছে, সংক্রমণ ফিরে আসে।’ এরপরেই তিনি দাবি করেন, আমেরিকায় ৬ কোটির বেশি লোকের কোভিড পরীক্ষা হয়েছে। কোনও দেশ এত পরীক্ষা করতে পারেনি। এখন ৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে টেস্টের ফল জানা যাচ্ছে।‌
টেস্টের নিরিখে ভারত যে সত্যিই পিছিয়ে, তা মনে করিয়ে দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (‌হু)‌–‌র চিফ সায়েন্টিস্ট সৌম্যা স্বামীনাথন। তাঁর মতে লকডাউন সাময়িক ব্যবস্থা, সংক্রমণ সামলানোর জন্য বাড়াতে হবে পরীক্ষার সংখ্যা। একটি ভিডিও কনফারেন্সে তিনি জানান, করোনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে জার্মানি, তাইওয়ান, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপানের মতো অনেক দেশের তুলনাতেই ভারত পিছিয়ে আছে। এমনকী আমেরিকাতেও বি‌পুল সংখ্যক লোকের টেস্টিং হচ্ছে। সৌম্যার পরামর্শ, কোভিড পরীক্ষার ব্যাপারে সর্বত্রই স্বাস্থ্য দপ্তরের একটা মাপকাঠি থাকা দরকার। লাখ বা দশ লাখ মানু্ষ পিছু কত পরীক্ষা হচ্ছে, পজিটিভ হওয়ার হার কত— এ সব দেখতে হবে। কম টেস্ট মানে চোখ বন্ধ অবস্থায় আগুন নেভানোর চেষ্টা করা। সৌম্যা জানান, এই মুহূর্তে পৃথিবীতে ২৮টি সম্ভাব্য টিকার পরীক্ষা ক্লিনিক্যাল পর্যায়ে আছে, যার মধ্যে দ্বিতীয় স্তরে আছে ৫টি। প্রাক–‌ক্লিনিক্যাল পর্যায়ে আছে ১৫০–‌এর ওপর সম্ভাব্য টিকা। ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top