আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌আমেরিকার জন্য সেরা সময় এটা। জর্জ ফ্লয়েডের জন্যেও এটা মহান দিন। সাম্যের দিক থেকেও।’‌ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ১১ দিনের মাথাতেই এমনটা মনে হল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। 
প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মুখ খুললেন। শুরু হল বিতর্ক। হোয়াইট হাউজে বসে সাংবাদিক সম্মেলন করলেন ট্রাম্প। বিষয়, আমেরিকার অর্থনীতি। অর্থনীতিবিদদের মতে, করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউন হওয়ার ফলে আমেরিকায় বেকারত্বের হার বেড়েছে। কিন্তু এদিন তার একেবারে উল্টো কথা বললেন ট্রাম্প। তাঁর মতে, আমেরিকার সেরা সময় এটা। বেকারত্বের কোনও সমস্যা নেই। চাকরির প্রচুর সুযোগ রয়েছে চারদিকে। তাঁর মতে, এখন আমেরিকার অর্থনীতি ‘‌রকেট মোড’– এ এগোচ্ছে। সম্মেলনের বাকি সময়টায় তিনি বললেন, ‘‌’‌একদিনে যা যা হয়েছে, তা যেন আর না হয় সেটাই আমাদের দেখতে হবে। জর্জ ফ্লয়েড নিশ্চয়ই এখন ওপর থেকে সব দেখতে পাচ্ছেন। তাঁর জন্য ভাল দিন এটা। যা ঘটছে, তা আমাদের দেশের জন্য মহান। সাম্যের দিক দিয়েই হোক বা অর্থনীতির দিক দিয়ে।’‌ 
সেদেশের মানুষ অবশ্য অন্য কথাই বলেছেন। তাঁদের অভিযোগ, পুলিশি অত্যাচার, বৈষম্য, বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে একবারও রুখে দাঁড়াননি তিনি। 
তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে বিতর্কের জলঘোলা শুরু হতেই হোয়াইট হাউজের ঊর্ধ্বতন জনসংযোগ উপদেষ্টা বেন উইলিয়ামসন টুইট করে জানালেন, ট্রাম্পের মন্তব্যের যা মানে করা হচ্ছে, তা ভুল। উনি বলতে চেয়েছিলেন, আইনিভাবে সমান ন্যায়বিচার এবং সমান আচরণের জন্য লড়াইয়ের কথা।

জনপ্রিয়

Back To Top