স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ বরাবর বলে এসেছে, বিশ্বায়নের পথে যাওয়াই যাবে না। শুধু ভারতীয় শিল্পপতিদের মদত দিতে হবে। বিদেশি পণ্য বর্জন। বিদেশ থেকে কাঁচামালও আনা যাবে না। জাতির উদ্দেশে এই সময়ে পঞ্চম দফার ভাষণে, প্রধানমন্ত্রী ৩৩ মিনিটের মধ্যে ২৫ বার আত্মনির্ভর হওয়ার কথা বলেছেন। বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ শৈবাল কর বলেন, কিছু মনে করবেন না, একটু রসিকতা করতে হচ্ছে। সোনার কেল্লা সিনেমায়, ভোজালিটা দেখিয়ে যে‌ভাবে জটায়ু লালমোহন বলেছিলেন— আত্মরক্ষা কি লিয়ে,‌ সেরকমই যেন শোনাল আত্মনির্ভরতা!‌ বিদেশ থেকে কাঁচামাল না আনলে চলবে?‌ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ওষুধের সর্বাধিক উৎপাদক ভারত। কাঁচামাল আসে চীন থেকে। ওষুধের ক্ষেত্রে আমরা এখনও এত নির্ভরশীল প্রধানত চীনের ওপর, বেরোতে অনেকটা সময় লেগে যাবে, যদি চেষ্টা করা হয়। পণ্য আমদানি না করলে আমেরিকা ভারতীয় পণ্য কিনবে?‌ আজকের দিনে দেওয়াল তোলা কি সম্ভব?‌ অকারণে বিদেশি পণ্য কেনার শখ আছে অনেকের। আমাদের প্রধানমন্ত্রী ২ লক্ষ টাকার সানগ্লাস পরেছেন। ব্যবহার করেন মহার্ঘ বিদেশি কলম। ছেড়ে দিন। কেন্দ্র–‌ঘোষিত মেক ইন ইন্ডিয়া। কী অবস্থা?‌ দেখুন, গত ৬ বছরে সবচেয়ে বেশি বিদেশি সংস্থাকে ভারতে ঢুকতে দেওয়া হয়েছে। ধনীতম শিল্পপতি মুকেশ আম্বানি এই কয়েক সপ্তাহেই ব্যবসায় এনেছেন তিনটি মার্কিন সংস্থাকে। পেট্রোপণ্যে সৌদি আরবের অ্যারামকোর সঙ্গে যাওয়ার চেষ্টা চলছে। রাফাল বিমান কেনা হল ফ্রান্স থেকে। ভারতীয় সহযোগী হিসেবে উপেক্ষা করা হল বিশিষ্ট রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হ্যাল–‌কে। আত্মনির্ভরতা, হায়!‌      ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top