সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Television: অবসাদ এলে এই কাজটা করতে পারো, ‘দিদি নম্বর ১’কে কী পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর?

নিজস্ব সংবাদদাতা | ০৫ মার্চ ২০২৪ ১১ : ৩২


এ যেন শেষ থেকে শুরু! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জি বাংলার রিয়েলিটি শো ‘দিদি নম্বর ১’-এ এলেন। সবার সঙ্গে খেললেন। নতুন রূপে জয় করলেন বাংলার মন—এ সব এখন অতীত। মুখ্যমন্ত্রীর নতুন রূপটাই যেন নতুন করে প্রতি মুহূর্তে আবিষ্কারের বিষয়। সেই আবিষ্কার থেকেই টুকরো মুহূর্ত ভাইরাল চ্যানেলের সামাজিক পাতায়। অবসাদ এলে কী করেন মুখ্যমন্ত্রী? তারই টিপস দিলেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়কে! 

মুখ্যমন্ত্রী রিয়েলিটি শো-তে আসছেন। সেই খবর থিতোনোর আগেই নতুন ঝড়। রচনাকে তাঁর খুবই পছন্দ। দিদি নং ১-এর স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, মেয়েদের কাছে তাঁর আবেদন এবং সাড়া জাগানো জনপ্রিয়তাকে তিনিও সম্মান করেন। তাই নাকি সঞ্চালিকা তাঁর আগামী লোকসভা নির্বাচনের নতুন প্রার্থী। এমন খবরে যদিও উভয় পক্ষ মান্যতা দেননি। তবে বাংলার ‘দিদি’, ‘দিদি নম্বর ১’কে সস্নেহে অনেক পরামর্শ দিয়েছেন। জানিয়েছেন ‘স্ট্রেস’ সামলানোর সহজ পদ্ধতি। প্রসঙ্গ উঠেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিয়মিত অনেকটা সময় ট্রেডমিলে হাঁটা নিয়ে। রচনা হাসতে হাসতে জানিয়েছেন, তিনি বিস্মিত মুখ্যমন্ত্রীর অফুরন্ত এনার্জি দেখে। অনেক দিন ধরেই জানার ইচ্ছে, কী করে সম্ভব? ‘দিদি’ সঙ্গে সঙ্গে জানান, তিনি না হাঁটলে তাঁর মাথা হাঁটে না!



তারপরেই অকপট স্বীকারোক্তি, ‘‘সবটাই হয় মা-মাটি-মানুষের হাসিমুখ দেখে। বাংলাকে রাজ্য নয় আমার পরিবার মনে করি। তাই রাজ্যের মানুষ ভাল থাকলে আমি ভাল থাকি।’’ এও জানান, শিশুদের খুব পছন্দ করেন। ওদের সঙ্গ উপভোগ করেন। খুব অবসন্ন হয়ে পড়লে একদল শিশুদের সঙ্গে সময় কাটান। তাতেই তাঁর মন ভাল হয়ে যায়। শিশুর সারল্য, নিষ্পাপ আচরণ তাঁকে নতুন করে এনার্জি জোগায়। এই পরামর্শ তিনি রচনাকেও দিয়েছেন। বলেছেন, ‘‘অবসাদ এলে আমার পথে হাঁটতে পারো। একদল শিশুকে ডেকে নাও। ওদের সঙ্গে আড্ডা দাও। মন খুলে আড্ডা দিতে পারলে মনের ভার অনেকটাই লাঘব হয়।’’ 



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া