বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Mohammad Ashraful: অভিজ্ঞতার তাচ্ছিল্য বাংলাদেশের ব্যর্থতার কারণ, দাবি প্রাক্তন অধিনায়কের

Sampurna Chakraborty | ২৮ অক্টোবর ২০২৩ ১০ : ১৮


সম্পূর্ণা চক্রবর্তী: একটা সময় বাংলাদেশের হয়ে দাপটের সঙ্গে খেলেছেন। টেস্ট, একদিনের ক্রিকেটে, টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে দ্রুততম অর্ধশতরানের মালিক। ২০০৭ থেকে ২০০৯ দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মহম্মদ আশরাফুল। এখন ভূমিকা বদলেছে। বিশ্বকাপের টিভি বিশেষজ্ঞ হয়ে ঘুরছেন ভারতের বিভিন্ন শহরে। যদিও ব্যাটের সঙ্গে সম্পর্ক পুরোপুরি ছাড়েননি। এখনও ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেন। আগামী এপ্রিলে ইংল্যান্ডে পাড়ি দেবেন। গোটা মরশুম খেলবেন পোর্টসমাউথ ক্রিকেট ক্লাবে। আইসিসি গ্রেড থ্রি কোচিং ডিগ্রিও করে ফেলেছেন। প্রথমটি করেন লন্ডন থেকে, দ্বিতীয়টি আবু ধাবি থেকে। পরবর্তীতে কোচিংয়ে আসার ইচ্ছে রয়েছে। প্রাথমিক পছন্দ নিজের দল বাংলাদেশ। তবে ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকতে যেকোনও দলের কোচ হতেই তৈরি। কিন্তু বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে চূড়ান্ত হতাশ আশরাফুল। ছন্দে থাকা দলের এতটা অধঃপতনের কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না বাংলাদেশের প্রাক্তন অধিনায়ক। কিন্তু এই ব্যর্থতার কিছুটা দায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে দিলেন। ভারতের উদাহরণ টেনে নির্বাচকদের দল নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। মহম্মদ আশরাফুল বলেন, 'বাংলাদেশের ব্যর্থতার কোনও কারণ আমি খুঁজে পাচ্ছি না। দলটা এশিয়া কাপও যথেষ্ট ভাল খেলেছে। কিন্তু হঠাৎ কি করে এত খারাপ খেলছে বুঝতে পারছি না। তবে এর দায় কিছুটা যায় বিসিবির ওপর। দল নির্বাচনের প্রক্রিয়া ঠিক নয়। অভিজ্ঞতাকে গুরুত্ব দেওয়া হয় না। মাহমুদুল্লাহকেও শেষ মুহূর্তে নেওয়া হয়েছে। ভারতীয় দল কিন্তু অভিজ্ঞতার গুরুত্ব দেয়। এবার যেমন অশ্বিনকে নেওয়া হয়েছে। তেমন বাংলাদেশেরও উচিত অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের অন্তত ১৫ জনের দলে রাখা। বিশ্বকাপের মতো ইভেন্টে অভিজ্ঞতার গুরুত্ব অপরিসীম।' 

বিশ্বকাপের মাঝে শাকিব আল হাসানের দু'দিনের ঢাকা সফর নিয়ে প্রচুর কথা চলছে। অনেকেই মনে করছেন, এতে টিম স্পিরিটে প্রভাব পড়বে। কিন্তু তেমন মনে করেন না আশরাফুল। বরং দাবি, এই ব্রেক শাকিবকে ছন্দে ফিরতে সাহায্য করতে পারে। আশরাফুল বলেন, 'শাকিবের ঝটিকা ঢাকা সফর টিম স্পিরিটে কোনও প্রভাব ফেলবে না। বরং উপকার হতে পারে। ছন্দে ফিরতে সাহায্য করতে পারে। এশিয়ার দেশগুলোতে অধিনায়কের থেকেও কোচের গুরুত্ব বেশি। নেতার খুব একটা বিশেষ ভূমিকা নেই। ধোনি, রোহিত, কোহলির ক্ষেত্রে বিষয়টা আলাদা হতে পারে। কিন্তু সার্বিকভাবে দলে কোচেরই প্রাধান্য বেশি। তাই শাকিবের দলের সঙ্গে দু'দিন না থাকায় কোনও পার্থক্য হবে না।' আফগানিস্তান দুটো হেভিওয়েট দলকে হারিয়ে জায়ান্ট কিলারের তকমা পেলেও পাকিস্তান, বাংলাদেশ ডাহা ব্যর্থ। অথচ তাঁদের পরিবেশ, পরিস্থিতির সঙ্গে মিল রয়েছে ভারতের। প্রাক্তন বাংলাদেশ অধিনায়ক মনে করেন, এবার ভারতের পিচগুলো অত্যধিক ফ্ল্যাট। এইধরনের উইকেটে খেলার অভ্যাস নেই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। তবে ইংল্যান্ডের হতশ্রী পারফরম্যান্স দেখে অবাক আশরাফুল। বর্তমান পারফরম্যান্স অনুযায়ী চার পছন্দের ফাইনালিস্ট বেছে নেন বাংলাদেশের প্রাক্তন অধিনায়ক। সেই তালিকায় রয়েছে ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। তারমধ্যে চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে রোহিতদের এগিয়ে রাখছেন। জোড়া হার দিয়ে শুরু করলেও সঠিক সময় জ্বলে উঠেছে অস্ট্রেলিয়া। ওয়ার্নারদেরও ফাইনালে দেখছেন আশরাফুল। 



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া