বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Pakistan-South Africa: রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে শীর্ষে দক্ষিণ আফ্রিকা, সেমিফাইনালের রাস্তা আরও কঠিন হল বাবরদের

Sampurna Chakraborty | ২৭ অক্টোবর ২০২৩ ১৭ : ২৪


আজকাল ওয়েবডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ১১ রান। পাকিস্তানের ১ উইকেট। এই জায়গা থেকে প্রোটিয়াদের জেতালেন কেশব মহারাজ। শুক্রবার চেন্নাইয়ে পাকিস্তানকে ১ উইকেটে হারিয়ে টেবিল শীর্ষে চলে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা। ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট তাঁদের। এক ম্যাচ কম খেলে সমসংখ্যক পয়েন্ট ভারতের। কিন্তু রানরেটে এগিয়ে প্রোটিয়ারা। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এই প্রথম টানা চার ম্যাচ হারল পাকিস্তান। জেতা ম্যাচ হাতছাড়া করতে বসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। চাপের মুখে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়েছিল প্রোটিয়ারা। কিন্তু শেষমেষ রুদ্ধশ্বাস জয়। চলতি বিশ্বকাপের সেরা ম্যাচ। একটা সময় ৫ উইকেটে ২৩৫ রান ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। প্রয়োজন ছিল ৩৬ রানের। হাতে ছিল ৫ উইকেট। কিন্তু এই জায়গা থেকে ম্যাচটাকে কঠিন করে জিতল দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪৬.৪ ওভারে ২৭০ রানে অলআউট হয়ে যায় পাকিস্তান। টানটান উত্তেজনার ম্যাচে রান তাড়া করতে নেমে ৪৭.২ ওভারে জয়সূচক রানে পৌঁছে যায় প্রোটিয়ারা। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে সেমিফাইনালের রাস্তা আরও কঠিন হয়ে গেল পাকিস্তানের। ৬ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট বাবরদের। পাকিস্তানের বাকি তিনটে ম্যাচ বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। বাকি সব ম্যাচ জিতলেও সর্বসাকুল্যে ১০ পয়েন্ট পর্যন্ত পৌঁছতে পারবে। সেক্ষেত্রে বাকিদের রেজাল্টের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে বাবরদের। 

হারের হ্যাটট্রিকে সেমিফাইনালের দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়ার পথে ছিল পাকিস্তান। এদিন মরণ-বাঁচন ম্যাচে নেমেছিলেন বাবররা। শেষ চারের আশা জিইয়ে রাখতে জিততেই হত। চেন্নাইয়ে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। তবে শুরুতেই ধাক্কা। দুই ওপেনার রান পায়নি। ৩৮ রানে ২ উইকেট হারায়। দলকে লড়াইয়ে ফেরান বাবর আজম। ১টি ছয়, ৪টি চারের সাহায্যে ৬৫ বলে ৫০ রান করে আউট হন পাকিস্তানের অধিনায়ক। শুরুটা ভাল করলেও ৩১ রানে ফেরেন মহম্মদ রিজওয়ান। ১৪১ রানে ৫ উইকেট হারায় পাকিস্তান। কিন্তু লোয়ার অর্ডারের সাফল্যে শেষপর্যন্ত লড়াই করার মতো রানে পৌঁছয় পাকিস্তান। ছয় নম্বরে নেমে অর্ধশতরান করেন সাউদ শাকিল। ৭টি চার সহ ৫২ বলে ৫২ রান করেন। উইকেটের অন্য প্রান্তে অনবদ্য শাদাব খান। ২টি ছয়, ৩টি চারের সাহায্যে ৩৬ বলে ৪৩ রান করেন। গুরুত্বপূর্ণ ২৪ রান যোগ করেন মহম্মদ নওয়াজ। তবে পুরো ৫০ ওভার ব্যাট করতে পারেনি পাকিস্তান। ৪৬.৪ ওভারেই ২৭০ রানে শেষ হয়ে যায় ইনিংস। 

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ফেরেন কুইন্টন ডি কক। ২৪ রান করেন ছন্দে থাকা উইকেটকিপার ব্যাটার‌। ৩৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ২৮ রানে আউট হন তেম্বা বাভুমা। ব্যর্থ ভ্যান ডার দুসেনও। ২১ রানে ফেরেন। একমাত্র একদিক ধরে রাখেন আইডেন মার্করাম। তাঁকে কিছুটা সঙ্গত দেন ডেভিড মিলার। পঞ্চম উইকেটে ৭০ রান যোগ করে এই জুটি। ৩৩ বলে ২৯ করে আউট হন মিলার। পরপরই ফিরে যান মার্কো জ্যানসেন (২০)। শেষদিকে কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। মার্করামকে ঘিরে স্বপ্ন দেখছিল প্রোটিয়ারা। কিন্তু মাত্র ৯ রানের জন্য শতরান হাতছাড়া করেন। ৯৩ বলে ৯১ রান করে আউট হন মার্করাম। ইনিংসে ছিল ৩টি ছয়, ৭টি চার। ৫ উইকেটে ২৩৫ রান ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। কিন্তু পরপর জোড়া উইকেট তুলে নিয়ে পাকিস্তানকে ম্যাচে ফেরান শাহিন শাহ আফ্রিদি। তবে শেষরক্ষা হল না। কিন্তু শেষ মিনিট পর্যন্ত লড়াইয়ের জন্য কৃতিত্ব প্রাপ্য পাকিস্তানের বোলারদের। 



বিশেষ খবর

নানান খবর

Charlie Chaplin Birthday 2024 #charliechaplin #birthday #BirthAnniversary #aajkaalonline

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া