বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

India-New Zealand: পাঁচে পাঁচ! শামি-কোহলির দাপটে শীর্ষে ভারত

Sampurna Chakraborty | ২২ অক্টোবর ২০২৩ ১৬ : ৫৮


আজকাল ওয়েবডেস্ক: পাঁচে পাঁচ। ধর্মশালায় মহাঅষ্টমীতে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪ উইকেটে জিতল ভারত। একটুর জন্য শতরান হাতছাড়া বিরাট কোহলির। ১০৪ বলে ৯৫ রান করে আউট হন। বাংলাদেশ ম্যাচের পুনরাবৃত্তি হতে পারত। রাহুলের জায়গায় এদিন ছিলেন জাদেজা। প্রেক্ষাপট সাজানো ছিল। কিন্তু ছক্কা হাঁকিয়ে শেষ করতে গিয়ে ম্যাট হেনরির বলে ফিলিপসের হাতে ধরা পড়েন বিরাট। বিশ্বাস করতে পারেননি। একশো হলেই একদিনের ক্রিকেটে ৪৯তম শতরান করে ছুঁয়ে ফেলতেন শচীন তেন্ডুলকরকে। সেই অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হল। প্রথম চার ম্যাচ অনায়াসে জেতার পর পঞ্চম ম্যাচে পরীক্ষার সামনে পড়তে হয় রোহিতদের। ১৯১ রানে ৫ উইকেট হারায় ভারত। কিন্তু চেজমাস্টার ক্রিজে থাকলে আর চিন্তা কী! রান তাড়া করতে নেমে আরও একটা ম্যাচ উইনিং ইনিংস বিরাট কোহলির। চলতি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রকারীদের তালিকায় সবার ওপরে। এদিন ছাপিয়ে গেলেন রোহিতকে। প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে‌ ২৭৩ রানে অলআউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৪৮ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে জয়সূচক রানে পৌঁছে যায় ভারত। ১২ বল বাকি থাকতেই জিতলেন রোহিতরা।‌পাঁচ ম্যাচ জিতে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিল শীর্ষে ভারত।  প্রথম চার ম্যাচে বিপক্ষ দল রোহিতদের চ্যালেঞ্জের মুখেই ফেলতে পারেনি। কিন্তু ২৭৩ রান নিয়ে যথেষ্ট লড়াই করে কিউয়িরা।‌ ভারতের প্রত্যেক ব্যাটারই শুরুটা ভাল করে। কিন্তু কোহলি বাদে বাকিরা বেশিক্ষণ উইকেটে টিকে থাকতে পারেনি। যদিও শুরুটা দারুণ করেন রোহিত। এদিনও ছক্কা, চারের বন্যা বইয়ে দেন। আরও একটি বড় ইনিংসের প্রত্যাশা ছিল ভারতের নেতার থেকে। কিন্তু ফার্গুসনের একটা বাজে বলে আউট হন রোহিত। তার আগে অবশ্য তাঁর হাত ধরেই ভারতের সূচনা ভাল হয়। ৪০ বলে ৪৬ রানে আউট হন রোহিত। ইনিংসে ছিল ৪টি ছয় এবং চার। শুভমন গিল, শ্রেয়স আইয়ার, কেএল‌ রাহুল শুরুটা ভাল করলেও দ্রুত প্যাভিলিয়নে ফেরেন। ৩১ বলে ২৬ রানে আউট হন গিল। ছটা চার মেরে দারুণ শুরু করেন শ্রেয়স।‌ কিন্তু আবার সেই শর্ট বলে সমস্যার খেসারত দিতে হল। ২৯ বলে ৩৩ রানে আউট হন। কেএল রাহুলের ক্ষেত্রেও একই। শুরুটা করেও ২৭ রানে ফেরেন। বিশ্বকাপে অভিষেক সুখকর হয়নি সূর্যকুমার যাদবের। ২ রানে রান আউট হন। কিন্তু এক প্রান্ত ধরে রাখেন বিরাট। দলকে প্রায় জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন। ৩৯ রানে অপরাজিত থাকেন জাদেজা। তবে এদিনের জয়ের কৃতিত্ব মহম্মদ শামির। ১০ ওভার বল করে ৫৪ রানে ৫ উইকেট নেন ভারতীয় পেসার। ম্যাচের একটা সময় নিউজিল্যান্ড ৩১০-৩২০ রানের দিকে এগোচ্ছিল। কিন্তু শামির দুর্দান্ত স্পেলে ম্যাচে ফেরে ভারত। এক ওভারে তাঁর জোড়া উইকেট কিউয়িদের তিনশোর নীচে বেঁধে রাখতে সাহায্য করে। একইসঙ্গে নতুন রেকর্ডও করেন। টপকে যান অনিল কুম্বলেকে।  টসে জিতে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাট করতে পাঠান রোহিত। শুরুতেই ধাক্কা খায় কিউয়িরা। ১৯ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায়। পরিত্রাতার ভূমিকা নেন দুরন্ত ছন্দে থাকা ড্যারেল মিচেল। রচীন‌ রবীন্দ্রকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ১৫৯ রান যোগ করেন। শেষ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করেন মিচেল। ১২৭ বলে ১৩০ রানে আউট হন। একদিন ক্রিকেটে তাঁর সর্বোচ্চ স্কোর। ঝকঝকে ইনিংসে ছিল ৫টি ছয়, ৯টি চার। ৮৭ বলে ৭৫ করেন রচীন। বাকিরা কেউ রান পায়নি। মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় ২৭৩ রানে অলআউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। ভারতের তারকা ঠাসা ব্যাটিং লাইন আপকে আটকে রাখতে ব্যর্থ বোল্ট, ফার্গুসনরা।‌



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া