বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Mohun Bagan: পাঁচে পাঁচ, এএফসিতে ব্যর্থতার ধাক্কা সামলে নয়া নজির মোহনবাগানের

Sampurna Chakraborty | ০২ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৭ : ০২


মোহনবাগান - (হ্যামিল, আশিস)

হায়দরাবাদ -

আজকাল ওয়েবডেস্ক: পাঁচে পাঁচ। আইএসএলে নতুন রেকর্ড মোহনবাগানের। আইএসএলে এর আগে এই ঘটনা ঘটেনি। ঘরের মাঠে লজ্জার হারে এএফসি কাপ থেকে বিদায় নেওয়ার পর আইএসএলে জয়ে ফিরল মোহনবাগান। শনিবার ওড়িশায় হায়দরাবাদকে ২-০ গোলে হারাল সবুজ মেরুন। গোল করেন ব্র্যান্ডন হ্যমিল এবং আশিস রাই। ম্যাচের ৮৫ মিনিটে সাহালের থ্রু ধরে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে সেকেন্ড পোস্টে রাখেন অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্ডার। অতিরিক্ত সময়ে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেন আশিস। ৯০+৬ মিনিটে হুগোর শট বাঁচায় হায়দরাবাদ গোলকিপার। ফিরতি বলে ব্যবধান বাড়ান আশিস। দুই ডিফেন্ডারের গোলে জয়ে ফিরল সবুজ মেরুন। আইএসএলে টানা পাঁচ জয় মোহনবাগানের। ৫ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে ওড়িশাকে টপকে তিন নম্বরে উঠে এল কলকাতার প্রধান। এএফসির ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে এক মাস পর আইএসএল খেলতে নেমেই সাফল্য। চোটের জন্য এদিনও ছিলেন না মনবীর সিং এবং দিমিত্রি পেত্রাতোস।‌ একাধিক সুযোগ তৈরি হলেও গোলের জন্য ৮৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় বাগানকে। আবারও ব্যর্থ জেসন কামিন্স। ফর্মের ধারেকাছে নেই অজি স্ট্রাইকার। পরিবর্ত হিসেবে নেমে নজর কাড়তে পারেনি সাদিকুও। 

পাঁচ গোলের ধাক্কা সামলে তিনদিন পরই আইএসএলে নামে মোহনবাগান। দলে দুটো পরিবর্তন করেন জুয়ান ফেরান্দো। গ্ল্যান মার্টিন্সের জায়গায় দলে ফেরেন অনিরুদ্ধ থাপা। অন্যদিকে আর্মান্দো সাদিকুর পরিবর্তে শুরু করেন কিয়ান নাসিরি। প্রথমদিকে ম্যাচের রাশ ছিল হায়দরাবাদের হাতে। বল ধরে খেলার চেষ্টা করছিল থংবয় সিংটোর দল। কিন্তু ম্যাচের বয়স গড়াতেই আধিপত্য বিস্তার করে বাগান। প্রথমার্ধে সবুজ মেরুনের সুযোগও বেশি। ম্যাচের ১৫ মিনিটের মাথায় প্রথম সুযোগ। কামিন্সের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঁচায় হায়দরাবাদের গোলকিপার গুরমীত। ফিরতি বলে কিয়ান শট নেওয়ার আগেই ক্লিয়ার করে ডিফেন্ডাররা। ম্যাচের প্রথম কোয়ার্টার বাদ দিলে বাকিটা বাগানের। ৩-৫-২ ফরমেশনে শুরু করেন ফেরান্দো।‌ ৭ ম্যাচে জয়ের খাতা খুলতে পারেনি হায়দরাবাদ। তিনটে ড্র এবং চারটে ম্যাচ হারে নিজামের শহরের দল। কিন্তু প্রথমার্ধে গোলমুখ খুলতে পারেনি সবুজ মেরুন ব্রিগেড। ম্যাচের ২৬ মিনিটে গোল লক্ষ্য করে সাহালের শট বাঁচায় হায়দরাবাদ কিপার। তার তিন মিনিট পরে আবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল বাগানের সামনে। লিস্টনের ফ্রিকিক গোলকিপারের হাত এবং পোস্ট ছুঁয়ে বেরিয়ে যায়। জোড়া গোলের সুযোগ ছিল হায়দরাবাদের সামনেও। মিস করেন নোলস। সামনে একা বিদেশি স্ট্রাইকারকে রেখে দল সাজান সিংটো।