শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Hooghly: বাড়ির দেওয়ালে 'জয়' লেখা সার্থক হল

Pallabi Ghosh | ২৮ নভেম্বর ২০২৩ ১৫ : ৪৪


বিভাস ভট্টাচার্য, পুরশুড়া: হালকা কুয়াশা কিছুটা ঢেকে রেখেছে ল্যাম্পপোস্টের আলোটাকে। কিন্তু আবছাভাবে পড়লেও প্লাস্টার চটা দেওয়ালের লেখাটা কিন্তু ঠিকই পড়া যাচ্ছে, "জয়"। দেওয়ালের ওই পারে চলছে "দেবতা"র কাছে প্রার্থনা। এই বাড়িটা জয়দেব প্রামাণিকের বাড়ি। চুন দিয়ে ঘরের বাইরের ওই দেওয়ালে নিজের নামের প্রথম দুটো শব্দও তাঁর লেখা। আগেরবার বাড়ি এসে লিখেছিলেন। জয়দেব উত্তরকাশীতে সুড়ঙ্গের মধ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের মধ্যে একজন। তাঁর বাড়িতে টেলিভিশন নেই। তাই মোবাইল ফোনেই টিভি চ্যানেলে এই ১৭ দিন চোখ রেখে বসে থেকেছেন তাঁর মা তপতী প্রামাণিক। ছোট্ট খুপরি ঘরে মা"র পাশে ভিড় করে আছেন আত্মীয় প্রতিবেশীরা। তবে মঙ্গলবার চিন্তাটা অনেকটাই কম। কারণ, সুড়ঙ্গের ভেতরে সকলের সুস্থ থাকার খবর তিনি জেনে গিয়েছেন। সুস্থ অবস্থায় বের করে নিয়ে আসাও হয়েছে সবাইকে। এবার শুধু প্রতীক্ষা ছেলের ঘরে ফেরার খবরের জন্য।
সকালে উত্তরকাশীতে থাকা এক আত্মীয় মারফত উদ্ধারের শেষ পর্যায়ের খবর কানে আসতেই আর দেরি করেননি। দ্রুত পুজোপাঠ সেরে বসে পড়েছেন মোবাইল ফোন হাতে নিয়ে। যেই ঘরটায় তিনি বসেছিলেন সেই ঘরটাও জয়দেবেরই ঘর। সকাল সাড়ে আটটা থেকে সেখানেই ঠায় বসে মোবাইলে চোখ পেতেছেন। জয়দেবের খুড়তুতো ভাই অভি জানিয়েছেন, কাকিমাকে জোর করে একটু ওআরএস এবং কিছুটা মুড়ি খাওয়ানো হয়েছে। তিনি উঠতেই চাইছেন না। খুব দরকার না পড়লে কথাও বলছেন না। বাবা তাপস প্রামাণিকের একটা ছোট চায়ের দোকান আছে। বাড়ির কাছে খুশিগঞ্জ রোডের ধারে। ছেলের আটকে পড়ার পর থেকেই দোকান বন্ধ রেখেছিলেন। মাঝে জোর করে তাঁকে দিয়ে দোকান খুলিয়েছিলেন তাঁর কিছু আত্মীয়, বন্ধুরা। উদ্দেশ্য অন্যমনস্ক রাখা। ছেলে উদ্ধার হতে পারে এই খবর শোনার পর মঙ্গলবার সকাল থেকেই তিনি দোকানটা নিজের উদ্যোগেই খুলেছেন। কারণ, দোকানের ওপর সংসার অনেকটাই নির্ভরশীল। তাপস জানান, "আমি আশা কখনও ছাড়িনি। কিছু না কিছু একটা হবেই ভেবে মন শক্ত করতে চেয়েছি। ওর মা"কেও সে কথা বলেছি। আজ সকাল থেকেই মনটা কিছুটা হাল্কা। কিন্তু ওই যে বলে নিজের চোখে না দেখা পর্যন্ত বিশ্বাস নেই।"
হুগলি পুড়শুড়ার নিমডাঙি এলাকার জয়দেব ছাড়াও উত্তরকাশীর ওই সুড়ঙ্গে আটকে পড়েছিলেন ওই এলাকার হরিণাখালি অঞ্চলের সৌভিক পাখিরা। তাঁর বাবা অসিত পাখিরা এবং মা লক্ষ্মী পাখিরার চোখও মোবাইল ফোনে আটকে আছে। কথাবার্তা কারও সঙ্গে বিশেষ বলছেন না। এদিন সকাল থেকেই তাঁরাও অনেকটাই আশ্বস্ত। সন্ধের পর এক এক করে বেরিয়ে আসছেন শ্রমিকরা। একসময় দেখা গেল জয়দেব আর সৌভিককে। দুই মা আর দুই বাবার চোখে জল খুশিতে।



বিশেষ খবর

নানান খবর

ZERO DISCRIMINATION DAY 2024 #ZeroDiscriminationDay #aajkaalonline #discrimination

নানান খবর

Fire: চায়ের দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, তৃণমূল কাউন্সিলর সহ জখম ৪...

INDRANIL: পূরণ হল দীর্ঘদিনের চাহিদা, একাধিক প্রকল্প উদ্বোধন করলেন মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন...

Narendra Modi: ভোট সন্দেশখালির মহিলাদের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ! প্রশ্ন তুললেন মোদি...

LIVE: সন্দেশখালির মা বোনেদের সঙ্গে যা করেছে তৃণমূল তার জন্য গোটা দেশ দুঃখিত: মোদি...

WORLD CIVIL DEFENCE DAY 2024 #aajkaalonline #WorldCivilDefenceDay #DefenceDay

Old Woman: সাত বছরের নাতনির সূত্র খুঁজে বাড়ি ফেরানো হল স্টেশনে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধাকে...

HANG: প্রেমিকের সঙ্গে যোগসাজশে সন্তান খুন, ফাঁসির সাজা মায়ের ...

Mysterious Death: ‌ভাল হয়নি অঙ্ক পরীক্ষা, মানসিক অবসাদে চরম সিদ্ধান্ত উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর ...

Arrest: ‌শাহজাহান সঙ্গী আমির গাজিকেও ধরল পুলিশ, হল পাঁচ দিনের পুলিশ হেফাজত ...

Sheikh Shahjahan: শেখ শাহজাহানের প্রতি কোনও সমবেদনা নেই: প্রধান বিচারপতি শিবজ্ঞানম ...

Murshidabad: বহরমপুরে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু স্কুল শিক্ষিকার, আহত ৬...

১ মার্চ রাজ্যে ১০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী...

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে ফের গেরুয়া শিবিরে 'ঘর ওয়াপসি এই বিধায়কের...

BJP: একাধিক প্রার্থীর নামে দেওয়াল, হুগলিতে বিজেপি প্রার্থী নিয়ে বিভ্রান্তি...

Calcutta Highcourt: স্থানীয় থানায় মুচলেকা দিয়ে সন্দেশখালি যেতে পারবেন শুভেন্দু, জানাল হাইকোর্ট...

ESI: শ্রীরামপুর ইএসআই হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় মেডিক্যাল কলেজ গড়ার প্রস্তাব...



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া