শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

India-Bangladesh: কোহলির শতরান, টানা চার ম্যাচে দাপুটে জয় ভারতের

Sampurna Chakraborty | ১৯ অক্টোবর ২০২৩ ১৭ : ২৪


আজকাল ওয়েবডেস্ক: পুনেতে বিরাট গর্জন। অনবদ্য ব্যাটিং। শিবাজীর শহরে ধারাবাহিকতা অব্যাহত। চলতি বিশ্বকাপে বিরাট কোহলির প্রথম শতরান। ছক্কা হাঁকিয়ে একশোয় পৌঁছন। ৯৭ বলে ১০৩ রানে অপরাজিত। পুনেতে একদিনের ক্রিকেটে ৮টি ম্যাচ খেলেছেন। তারমধ্যে ৩টি শতরান, ৫টি অর্ধশতরান। একশো শতাংশ সাফল্য কোহলির। শেষ ২০ রান যেন স্ক্রিপ্টেড। ভারতের জয়ের জন্য বাকি ছিল ২০ রান, বিরাটের শতরানের জন্যও। কিন্তু কেএল রাহুলের মতো ভুল করেননি কোহলি। শেষদিকে ছক কষে খেলে আরও একটি শতরানে পৌঁছে যান বিরাট। ইনিংসে রয়েছে ৪টি ছয়, ৬টি চার। শাকিব আল হাসানের অভাব বোধ করল বাংলাদেশ। রোহিত, শুভমন, বিরাটদের রুখতে ব্যর্থ প্রতিপক্ষের অনভিজ্ঞ বোলিং। ২৫৭ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ৪১.৩ ওভারেই সেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত। ৫১ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেটে জয় ভারতের। জয়ের হ্যাটট্রিকের পর ৪-০। বিশ্বকাপে ঝড়ের গতিতে এগোচ্ছে রোহিত অ্যান্ড কোম্পানি। পরপর চার ম্যাচ জিতলেও রানরেটে দ্বিতীয় স্থানে ভারত। নিউজিল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পরের দুটো কঠিন ম্যাচে নামার আগে মনোবল দ্বিগুণ বাড়িয়ে রাখলেন রোহিতরা। এখনও পর্যন্ত ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে অনবদ্য ভারতের নেতা। বুদ্ধিদীপ্ত অধিনায়কত্বের পাশাপাশি দুর্দান্ত ব্যাটিং। শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়া বাদ দিয়ে বাকি সব ম্যাচেই দলকে শক্ত ভীতের ওপর দাঁড় করিয়ে দিচ্ছেন। এদিনও অন্যত্র নয়। তবে মাত্র ২ রানের জন্য অর্ধশতরান হাতছাড়া করেন রোহিত। ২টি ছয়, ৭টি চারের সাহায্যে ৪০ বলে ৪৮ রান করেন। শর্ট বলে ছয় মারতে গিয়ে বাউন্ডারিতে ধরা পড়েন। উইকেটের অন্য প্রান্তে অনবদ্য শুভমন গিলও। পাকিস্তান ম্যাচে রান পাননি সদ্য ডেঙ্গি আক্রান্ত তারকা ক্রিকেটার। কিন্তু এদিন আবার চেনা ছন্দে ধরা দেন। ৫৫ বলে ৫৩ করে আউট হন। একদিনের ক্রিকেটে তাঁর দশম অর্ধশতরান। ইনিংসে ছিল ২টি ছয়, ৫টি চার। গ্যালারিতে বসে গিলের ব্যাটিং উপভোগ করেন শচীনকন্যা সারা তেন্ডুলকর। শাকিবের অনুপস্থিতির পুরো ফায়দা তোলেন বিরাট কোহলি। হাফ সেঞ্চুরি করেন প্রাক্তন অধিনায়ক। বাংলাদেশের অলরাউন্ডারের বিরুদ্ধে রেকর্ড ভাল না বিরাটের। তাঁকে একাধিকবার আউট করেছেন শাকিব। কিন্তু আজ বাংলাদেশের নেতা না থাকার পুরো ফায়দা তোলেন কোহলি। ৪৮ বলে অর্ধশতরানে পৌঁছে যান। কনভার্ট করেন একশোয়। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের পর আবার রান পেলেন কোহলি। শুরুটা ভাল করেও বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি শ্রেয়স আইয়ার। ১৯ করে আউট হন। চোটের জন্য ব্যাট করার সম্ভাবনা ছিল না হার্দিক পাণ্ডিয়ার।‌ তাই বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হয় কেএল রাহুলকে। ৩৪ রানে অপরাজিত থাকেন রাহুল।  এদিন পুনেতে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। শাকিবের বদলে আজ দলকে নেতৃত্ব দেন তিনি। কিন্তু তারকা অলরাউন্ডারের অনুপস্থিতে ভারতের তাবড় তাবড় ব্যাটারদের আউট করতে হিমশিম যায় ওপার বাংলার বোলাররা। তবে শুরুটা ভালই করে বাংলাদেশ। প্রথম উইকেটে ৯৩ রান যোগ করে তানজিদ হাসান এবং লিটন দাস। বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথম উইকেটে তাঁদের সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ। দু'জনেই অর্ধশতরান করেন। ৩টি ছয়, ৫টি চারের সাহায্যে ৪৩ বলে ৫১ রান করেন তানজিদ। ৮২ বলে ৬৬ রান করে আউট হয়। ইনিংসে ছিল ৭টি চার। ওপেনিং জুটি ভাঙতে যথেষ্ট কসরত করতে হয় ভারতীয় বোলারদের। শেষপর্যন্ত জুটি ভাঙেন কুলদীপ যাদব। ভাল বল করে জোড়া উইকেট তুলে নেন জাদেজাও। মিডল অর্ডার ব্যর্থ। রান পাননি নাজমুল হোসেন শান্ত (৮), মেহিদি হাসান মিরাজ (৩), তৌহিদ হৃদয় (১৬)। স্পিনারদের দাপটেই মাঝপথে খেই হারায় বাংলাদেশ। শেষদিকে লড়াই চালান মুশফিকুর রহিম এবং মহমদুল্লাহ। ৪৬ বলে ৩৮ করেন উইকেটকিপার ব্যাটার। ৩টি ছয় এবং চারের সাহায্যে ৩৬ বলে ৪৬ করে আউট হন মহমদুল্লাহ। দুটো করে উইকেট নেন বুমরা, সিরাজ এবং জাদেজা। চার ম্যাচেই বড় ব্যবধানে জয়। কিন্তু তবুও স্বস্তিতে নেই ভারতীয় শিবির। তার কারণ হার্দিক পাণ্ডিয়া। তাঁর চোটের বিষয়ে এখনও কোনও আপডেট দেয়নি ভারতীয় শিবির। 



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া