সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Mamata Banerjee: একশ দিনের কাজের বকেয়া আদায়ে আরও বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মমতার

Riya Patra | ০১ নভেম্বর ২০২৩ ১১ : ০৪


আজকাল ওয়েবডেস্ক: সবে দুর্গাপুজো মিটেছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন কালীপুজো মিটলেই একশ দিনের কাজের প্রাপ্য টাকা আদায়ের দাবিতে আরও বড় আন্দোলনের পরিকল্পনার কথা। পায়ের চোটের কারণে দীর্ঘদিন বাড়িতে থেকেই সামলেছেন প্রশাসনিক কাজকর্ম। পুজো উদ্বোধন, লাইভে বার্তা, মন্ত্রিসভার বৈঠক সব সম্পন্ন করেছেন কালীঘাটের বাড়ি সংলগ্ন দপ্তর থেকে। মঙ্গলবার থেকে নবান্নে ফের আসছেন তিনি। বুধবার নবান্ন থেকেই সাংবাদিক সম্মেলন করেন। একাধিক বিষয়ে তিনি তথ্য প্রকাশ করেন এদিন। পুজোর থিম, সজ্জা নিয়ে প্রশংসা করেন, জানান কোনওরকম কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি পুজোয়। তবে একাধিক বিষয়ে মতামত প্রকাশের সঙ্গেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আজ ফের সরব হয়েছেন বকেয়া টাকা আদায় নিয়ে। রাজ্যের একশ দিনের কাজের বকেয়া টাকা আদায়ের দাবিতে গত কয়েকমাস ধরেই ব্যাপক সরব বাংলার শাসক দল। শুধু কলকাতা নয়, দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে দিল্লিতেও আন্দোলন, প্রতিবাদ সংগঠিত হয়েছে। বারবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে সুর চড়ানো হয়েছে এই প্রসঙ্গে। বুধবার নবান্নর সাংবাদিক বৈঠক থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সাফ জানিয়ে দিলেন, অধিকারের অর্থ ছিনিয়ে আনতে পরিকল্পনা আরও বৃহত্তর আন্দোলনের। মমতা ব্যানার্জি বুধবার জানান, "আমাদের তরফ থেকে একশ দিনের কাজের ব্যাপারে একটা আন্দোলন দীর্ঘদিন হয়েছে। দিল্লিতেও হয়েছে। ৭ হাজার কোটি টাকা প্রায় এখনও পাওনা আছে। যাঁরা কাজ করেছেন, দীন-দরিদ্র, গরীবমানুষেরা, তাঁদের টাকা আজও পাওয়া যায়নি।" কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাংলার শাসক দলের বিধায়ক, মন্ত্রী, সাংসদদের সঙ্গে দেখা করেননি বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কটাক্ষ করেন কেন্দ্রীয় সরকারকে। তারপরেই তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন ১৬ নভেম্বরের বৈঠকে দল ঠিক করবে বৃহত্তর আন্দোলনের রূপরেখা। মুখ্যমন্ত্রী জানান, "আমি পরিস্কার বলছি, যদি একশ দিনের কাজের টাকা দ্রুত না ছাড়া হয়, ১৬ নভেম্বর আমরা নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে সমস্ত পঞ্চায়েত, মিউনিসিপ্যালিটি, গ্রমসভা, জেলা পরিষদ, ব্লক প্রেসিডেন্ট, সাংসদ, বিধায়ক সকলকে নিয়ে মিটিং-এর আহ্বান জানিয়েছি। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেব, একশ দিনের কাজের টাকা দিতে হবে, তা না হলে আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে যাবে। আন্দোলনের রূপরেখা ঠিক হবে।" বেলা ১২টায় বসবে ওই বৈঠক। কালীপুজোর কারণে বৈঠক কয়েকদিন পিছিয়ে করা হচ্ছে বলেও জানান। সঙ্গেই জানান ছট পুজো, জগদ্ধাত্রী পুজোর দিন বাদ দিয়েই আন্দোলনের রূপরেখা ঠিক করা হবে। গ্রামীণ আবাসন প্রকল্প প্রসঙ্গেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। বলেন, "গ্রামীণ আবাসনের ১১ লক্ষের তালিকা চেয়েও টাকা দিল না।"



বিশেষ খবর

নানান খবর

Earth day 2024 #Aajkaal #EarthDay2024 #EarthDay #aajkaalonline

নানান খবর



রবিবার অনলাইন

সোশ্যাল মিডিয়া