শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪

সম্পূর্ণ খবর

Pakistan-Bangladesh: ইডেনে ফখর ঝড়ে পাকিস্তানের দাপুটে প্রত্যাবর্তন, ছিটকে গেল বাংলাদেশ

Sampurna Chakraborty | ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ১৬ : ০৬


সম্পূর্ণা চক্রবর্তী: বাংলাদেশ ইনিংসের পর ক্লাব হাউজের আপার টায়ারে বসে বাংলাদেশের প্রাক্তন অধিনায়ক আশরাফুল বলছিলেন, 'ইডেনে পরে ব্যাট করে জেতা খুব সহজ নয়। দেখা যাক।' কোথাও হয়তো একটা আশার আলো দেখতে পেয়েছিলেন বাংলাদেশের প্রাক্তনী। কিন্তু সেটা ক্ষণস্থায়ী হয়। পাকিস্তান ব্যাট করতে নামতেই ঝড়ে তোলপাড় ইডেন। এই ঝড়ের নাম ফখর জামান। খারাপ ফর্ম এবং পরে অসুস্থতার জন্য দল থেকে বাদ পড়েছিলেন। শেষ করেকটা ম্যাচ খেলেন আবদুল্লাহ শফিক। ফিরলেন ধামাকা দিয়ে। শুরুতে দর্শক কম থাকলেও পরের দিকে ইডেনের ৪০ শতাংশেরও বেশি ভরে গিয়েছিল। তারমধ্যে অর্ধেক গ্যালারি বাংলাদেশিদের দখলে। তাসত্ত্বেও পাকিস্তানি ওপেনারের বিধ্বংসী ইনিংসের সঙ্গে তাল মেলাল ইডেন।

ক্রিকেটের নন্দনকাননে ছয়ের বন্যা বইয়ে দেন ফখর। তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করে গ্যালারি। ঝোড়ো ইনিংসে ৭টি ছয়, ৩টি চার। ৭৪ বলে ৮১ রান করে আউট হন পাকিস্তানের ওপেনার। আউট হলেন ঠিকই, কিন্তু ততক্ষণে ম্যাচ প্রায় বাবর আজমের পকেটে। স্বভাবতই ম্যাচের সেরা ফখর জামান। ১০৫ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেটে জয় পাকিস্তানের। প্রথমে ব্যাট করে ৪৫.১ ওভারে ২০৪ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। জবাবে ৩২.৩ ওভারে ৩ উইকেটের বিনিময়ে জয়সূচক রানে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। চার হারের পর জয়ের সরণিতে ফিরলেন বাবর অ্যান্ড কোম্পানি। অন্যদিক হাফ ডজন হারে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেল বাংলাদেশ।


টসে জিতে ব্যাটিং নেন শাকিব আল হাসান। এদিন দলে তিনটে পরিবর্তন করে পাকিস্তান। বাবর বলেছিলেন, উইকেটে আর্দ্রতা আছে। প্রথম দশ ওভার তার ফায়দা তুলতে হবে। যেমন কথা, তেমন কাজ। বল হাতে শুরুতেই কামাল শাহিন শাহ আফ্রিদির। পাকিস্তানের একনম্বর পেসার আবার ছন্দে। জোড়া উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের টপ অর্ডারকে ফিরিয়ে দেন। ২৩ রানে ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। চতুর্থ উইকেটে ৭৯ রান যোগ করেন লিটন দাস এবং মাহমুদুল্লা। একটুর জন্য অর্ধশতরান হাতছাড়া করেন লিটন। ৪৫ রানে আউট হন। এদিনও বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান প্রথমে বাতিলের খাতায় থাকা মাহমুদুল্লার। ৭০ বলে ৫৬ রান করেন। ইনিংসে ছিল ১টি ছয়, ৬টি চার।

অনেকদিন পর রান পান শাকিবও (৪৩)। তিন উইকেট নেন শাহিন আফ্রিদি এবং মহম্মদ ওয়াসিম। জোড়া উইকেট হ্যারিস রউফের। তবে ২০৪ রান যথেষ্ট ছিল না। ইডেনের নৈশালোকের আলোয় রান তাড়া করে জেতা কঠিন হলেও এদিন অনায়াসে জয়ের রানে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। সৌজন্যে ফখর জামান এবং আবদুল্লাহ শফিক। এদিন বাদ পড়েন ইমাম উল হক। পাকিস্তানের দুই ওপেনার মিলে বাংলাদেশের বোলিংয়ের তুলোধোনা করেন। প্রথম উইকেটে ১২৮ রান যোগ করে ওপেনিং জুটি। ৬৮ করে আউট হন শফিক। ৮১ করেন ফখর। রান পাননি বাবর (৯)। বাকি কাজটা সারেন মহম্মদ রিজওয়ান (২৬)। বিরাট ব্যবধানে জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে উঠে এল পাকিস্তান। রানরেটেও অনেকটাই উন্নতি হল বাবরদের। নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে পাকিস্তান। 

ছবি: অভিষেক চক্রবর্তী



বিশেষ খবর

নানান খবর

রজ্যের ভোট

নানান খবর

সোশ্যাল মিডিয়া