বাংলাদেশের নারায়ণডহর জমিদারবাড়িতে ছিল সঙ্গীতের পরিবেশ। দাদার সেতারেই শিশু মনোজশঙ্করের বাজানো শুরু। বাড়িতে রেকর্ডে শুনে এনায়াত খাঁ সাহেবের তিন–‌চার মিনিটের বাজনা ছোটো বয়সেই তুলে ফেলেছিলেন। প্রথাগত তালিম বিএসসি পড়ার সময়, কলকাতায়। উস্তাদ আলি আহমেদ খাঁ সাহেবের কাছে। পরে আলাপ উস্তাদ বাহাদুর খাঁ সাহেবের সঙ্গে। উনি তখন ঋত্বিক ঘটকের ‘‌সুবর্ণরেখা’‌র সঙ্গীত পরিচালনা নিয়ে ব্যস্ত। মনোজশঙ্কর যুক্ত হলেন সেই কাজে। পাশাপাশি বাহাদুর খাঁর কাছে তালিমও। পরে ‘‌গরম হাওয়া’‌, ‘‌বালিকা বধূ’‌, ‘‌নতুন পাতা’‌ ইত্যাদি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রসঙ্গীত বিভাগে শিক্ষকতার পাশাপাশি দেশে–‌বিদেশে করেছেন বহু অনুষ্ঠান। ৮৫ উত্তীর্ণ সেই প্রবীণ গুরুকে গুরুপূর্ণিমা উপলক্ষে সম্বর্ধিত করবে কলকাতা সেন্টার ফর ক্রিয়েটিভিটি। ২৭ জুলাই, সন্ধে ৬টায়, সংস্থার নিজস্ব প্রেক্ষাগৃহে। শেষপর্বের আকর্ষণ মনোজশঙ্করের সেতার ও অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ের তবলা।

জনপ্রিয়

Back To Top