বাংলার লোকসংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছিলেন গুরুসদয় দত্ত। সেই সঙ্গে চেয়েছিলেন নবীনদের দেশের কাজে তৈরি করতে। তৈরি করেছিলেন ব্রতচারী। তাঁরই পদাঙ্ক অনুসরণ করে লুপ্তপ্রায় লোকনৃত্য ও গানকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করছে চন্দননগর ব্রতচারী অঙ্গন। সম্প্রতি গুরুসদয় দত্তের স্মরণে চন্দননগর খলিসানি বিদ্যামন্দিরে বসেছিল ১৫তম ব্রতচারী মহাশিবির। হুগলির বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৬৩৭ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে দিনভর অনুশীলন করল ব্রতচারীর। সংস্থা সচিব সুদীপ দাস জানালেন, শিবিরের সূচনা করেন প্রধানশিক্ষক শুভায়ন মিত্র। ব্রতচারী গান, লাঠি, কাঠি ও রনপা নাচে অংশ নিল সবাই। পুরুষদের সঙ্গে সমানতালে তাল মেলাল মেয়েরাও। ধামসা–‌মাদলের তালে তালে তারাও মাতিয়ে দিল।

জনপ্রিয়

Back To Top