‘‌পথের পাঁচালী’‌ থেকে বাংলা সিনেমাকে অন্য ভাষা দিতে শুরু করেন পরিচালক সত্যজিৎ রায়। তাঁরই কাছাকাছি সময়ে আরেক পরিচালক তরুণ মজুমদার বাঙালিকে উপহার দিতে থাকেন আরেক ধরনের ছবি। বাঙালি অচিরেই আপন করে নেয় তাঁকেও। বিশেষ করে সাধারণ দর্শক। দুই মেরুর হলেও দুই পরিচালকের মধ্যে ছিল সৌহার্দ্য আর পারস্পরিক শ্রদ্ধার সম্পর্ক। দুজনেই নানা সময়ে একে অপরের প্রশংসা করেছেন লিখিত প্রতিবেদনে। তাই তো ২৭ এপ্রিল সত্যজিৎ রায় স্মারক বক্তৃতায় এবারের বক্তা তরুণবাবু, যিনি ছবির জগতে তনুবাবু বলে পরিচিত। ২ মে সত্যজিৎ রায়ের জন্মদিন। তার আগেই এই স্মারক বক্তৃতার আয়োজন করেছে সত্যজিৎ রায় সোসাইটি, শিশির মঞ্চে। উল্লেখ্য এর আগে এই স্মারক বক্তৃতা দিয়েছেন সত্যজিতের ছবিতে কাজ–‌করা দুই শিল্পী শর্মিলা ঠাকুর ও নাসিরুদ্দিন শাহ। মঞ্চ লাগোয়া গগনেন্দ্র প্রদর্শশালায় ‘‌গুপী গাইন বাঘা বাইন’‌ নিয়ে সত্যজিতের আঁকা নিয়ে এক ছবির প্রদর্শনীও শুরু হবে। তাতে থাকবে নিমাই ঘোষের তোলা বেশ কিছু আলোকচিত্রও।

জনপ্রিয়

Back To Top