আজকাল ওয়েবডেস্ক: পিছিয়ে গেল উত্তরাখণ্ডের কেদারনাথ আর বদ্রীনাথ মন্দিরের আনুষ্ঠানিক দ্বারোন্মোচনের দিন। নেপথ্যে করোনার জেরে দেশজুড়ে লকডাউন। আর এই পরিস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ১৪ মে দরজা খুলবে কেদারনাথ মন্দিরের। তার পরের দিন অর্থাৎ ১৫ মে দর্শনার্থীদের জন্য খুলবে বদ্রীনাথ মন্দির। দেশের সব ধর্মীয় স্থানই এখন দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ। করোনার জেরে কোথাও জমায়েত করা যাবে না। সেখানে কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ দ্বারোন্মোচন হলে ভক্ত সমাগম হবে। তাই পিছিয়ে দেওয়া হল সূচি।
জানা গিয়েছে, নির্দিষ্ট নির্ঘণ্ট অনুযায়ী অক্ষয় তৃতীয়ার কয়েকদিন পরে খুলে যায় কেদারনাথ আর বদ্রীনাথ মন্দির। সেই সূচির ভিত্তিতে এবার কেদারনাথ খোলার কথা ছিল ২৯ এপ্রিল আর বদ্রীনাথ ৩০ এপ্রিল। কিন্তু সমস্যা তৈরি হয়েছিল দুই মন্দিরের প্রধান পূজারির অনুপস্থিতি নিয়ে। তাই বুধবার বৈঠকে বসেন কেদারনাথ রাওয়াল ভীমশঙ্কর লিঙ্গের শীর্ষ তীর্থ পুরোহিত, বেদপতি, আচার্য এবং পঞ্চগাই সমিতির সদস্যরা। সেখানেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় পিছিয়ে দেওয়া হবে কেদারনাথ–বদ্রীনাথ মন্দিরের দ্বারোন্মোচন পিছিয়ে দেওয়ার।
উল্লেখ্য, গত নভেম্বর মাসে কেদারনাথ আর বদ্রীনাথ মন্দির বন্ধ হওয়ার পর তাঁদের পূজারিরা চলে গিয়েছিলেন নিজভূমে। কেদারনাথের পূজারি চলে গিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রে আর বদ্রীনাথের মূল পূজারি কেরলে। কিছু দিন আগেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের ব্যবস্থাপনায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে দুই পূজারিকে। কিন্তু সরকারি নিয়ম মেনে দু’জনকেই বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে যেতে হয়েছে। ফলে মন্দির খোলার দিনটাকেই পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top