আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অনেকদিন ধরেই তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বেড়েছে। একে একে সমস্ত প্রশাসনিক, দলীয় পদ থেকে দায়িত্ব ছেড়েছেন শোভন চ্যাটার্জি। তারপর কলেজের অধ্যক্ষের পদ থেকে সরে এসেছেন বৈশাখীও। সব দায়িত্ব ছেড়ে গতকালই দিল্লিতে উড়ে গিয়েছিলেন তাঁরা। আর আজই বিজেপির সদর দপ্তরে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন বাংলার রাজনীতির এই দুই বিতর্কিত চরিত্র। 
গতকালই দল বদল নিয়ে ঢোক গিলেছিলেন মুকুল রায়। বলেছিলেন মণিরুল ইসলামদের মতো নেতাকে দলে নেওয়া ঠিক হয়নি। শোনা যায়, রাজ্য বিজেপির অন্দরেই মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে আসা দল বদলুদের নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হয়। তারপর রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশেই নাকি দল বদল বন্ধ হয়। যদিও শোভনকে নিয়ে কোনও ক্ষোভ নেই রাজ্য বিজেপির। কালই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দিয়েছিলেন, শোভন চ্যাটার্জি বিজেপিতে যোগ দিলে তাঁদের কোনও আপত্তি নেই। বরং তাঁকে স্বাগত জানাবেন তিনি। ‌‌
এদিন বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ বিজেপির সদর দপ্তরে সাংবাদিক বৈঠক শুরু হয়। তার আগে বিকেল পৌনে চারটে নাগাদ দিল্লি বিজেপির দপ্তরে পৌঁছে যান শোভন ও বৈশাখী। সেখানার ছবিতে দেখা যায়, দপ্তরের ভিতরে মুকুল রায়ের সঙ্গে খোশগল্পে মেতেছেন তিনি। সঙ্গে রয়েছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তারপরে সাংবাদিক বৈঠকে হাজির হন শোভনরা। উপস্থিত ছিলেন মুকুল রায়, জে পি নাড্ডা সহ বেশ কয়েকজন প্রথম সারির বিজেপি নেতা। 

জনপ্রিয়

Back To Top