‌অগ্নি পান্ডে: মহম্মদ সামিকে নিয়ে বিতর্ক দিনের পর দিন অন্য মাত্রা নিচ্ছে। স্বামীর বিরুদ্ধে যাবতীয় অভিযোগ, তথ্যপ্রমাণ ইতিমধ্যেই লালবাজারে জমা দিয়েছেন স্ত্রী হাসিন জাহান। মঙ্গলবার রাতে তিনি আরও একটি বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন সামির বিরুদ্ধে। হাসিন জানান, মঙ্গলবারই হোয়াটসঅ্যাপ কল করে সামি তাঁকে গালিগালাজ করেছেন, হুমকিও দিয়েছেন। হাসিনের কথায়, ‘‌সামি বলেছে, তুমি আমাকে, আমার কেরিয়ারকে শেষ করে দিতে চাইছ। আমার পরিবারের বদনাম করছ তুমি। আমিও তোমার শেষ দেখে ছাড়ব।’‌ যা শুনে হাসিন বলেন, ‘‌তুমি এই ভাষায় আমার সঙ্গে কথা বলতে পারো না। তখন ও (সামি)‌ বলে, আমাকে বিয়ে করার সময় তোমার মনে ছিল না?‌ এরপরই আমার মাথা প্রচণ্ড গরম হয়ে যায়। আমি ফোন কেটে দিই।’‌ এখানেই না থেমে হাসিন জানান, সোমবার মেয়ে বেবোর কথা জানতে চেয়ে তাঁর ফোনে মেসেজ আসে সামির। কিন্তু হাসিনের মন্তব্য, ‘‌দেখুন, ২০১২ থেকে আমি সামিকে চিনি। ও কীভাবে মেসেজ করে, সেই ধারণা আমার আছে। তাই কালকের (‌সোমবার)‌ মেসেজের ভাষা দেখে আমি নিশ্চিত, ওটা সামির লেখা নয়। ওর পরিবারের কেউ বা বন্ধুবান্ধবদের কেউ মেসেজ করেছে।’‌ 
হাসিন খেয়াল করছেন, তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ক্রমাগত নোংরা, অশালীন পোস্ট করা হচ্ছে। তিনি মনে করেন, এই ঘটনায় সামি, তাঁর পরিবার এবং বন্ধুদের হাত রয়েছে। হাসিনের আইনজীবী জাকির হোসেন মঙ্গলবারই এই ঘটনা বিস্তারিতভাবে জানিয়েছেন লালবাজারের সাইবার ক্রাইম শাখায়। লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন তিনি। হাসিনদের দাবি, কারা এই নোংরা পোস্টগুলো করছে, তা খতিয়ে দেখা হোক। এর মধ্যেই হাসিন তাঁর ও মেয়ে বেবোর জন্য বাড়তি নিরাপত্তা দিতে আবেদন করেছেন লালবাজারের কাছে। হাসিনের কথায়, ‘‌লালবাজার আমার পাশে রয়েছে পরিবারের মতো। ওরা আমাকে শক্তি যোগাচ্ছে। তবুও ওদের কাছে বাড়তি নিরাপত্তা চেয়েছি।’‌ 
তবে, আরও তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা হল, হাসিন নিজের এই লড়াইয়ে প্রকাশ্যে পাশে চাইলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে। ‘‌আমি মুখ্যমন্ত্রীর সাহায্য চাইছি। আশা করেছিলাম, মুখ্যমন্ত্রী নিজেই বিষয়টা জানতে চাইবেন। মনে হয় উনি সময় করে উঠতে পারেননি। আমি চাই, উনি আমার পাশে থাকুন অন্যায়ের বিরুদ্ধে এই লড়াইয়ে। উনি ডাকলে যেতে রাজি আছি। তখনই ওঁকে বিস্তারিতভাবে সব জানাব’‌, মন্তব্য হাসিনের। তিনি রাজ্যের মহিলা সংগঠনগুলোকেও তাঁর পাশে দাঁড়ানোর আবেদন জানান। হাসিন বলেন, ‘‌এই লড়াইয়ের শেষ দেখে ছাড়ব। সমঝোতার কোনও প্রশ্নই নেই। সামির মতো নাম, খ্যাতিসম্পন্ন মানুষ কতটা চরিত্রহীন, সেটা প্রমাণ করে দেব।’‌
এদিকে মঙ্গলবার সকালে হাসিন একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরা ভেঙে ফেলেন রাগের মাথায়। রাতে অবশ্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চান তিনি। হাসিনের কথায়, ‘‌আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, আমার মানসিক অবস্থা ভাল নেই। বিধ্বস্ত আমি। এর মধ্যেই নিজের কাজ, মেয়ের কাজ করতে হচ্ছে। আমারও তো একটা ব্যক্তিগত জীবন আছে। সারাক্ষণ যদি আপনারা আমাকে ফলো করেন, তাহলে নিজের কাজ করব কীভাবে?‌ দয়া করে আমাকেও আপনারা একটু বুঝুন। তাও বলছি, আমি অনুতপ্ত। ক্ষমা চাইছি।’‌ 
আগামী ১৯ মার্চ আদালতে ১৪৬ ধারায় গোপন জবানবন্দী দেবেন হাসিন জাহান। তাঁকে ধর্ষণ করার অভিযোগও এনেছিলেন তিনি। তাই লালবাজারকে বলেছেন, মেডিক্যাল টেস্ট দিতেও তিনি রাজি। 

জনপ্রিয়

Back To Top