আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাতারাতি সিদ্ধান্ত বদল। আগামী ৩০ মে প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণে যাচ্ছেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বুধবার টুইট করে একথা জানিয়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। এদিন বিকেলে ৫ টা ২০–র বিমানে দিল্লি যাওয়ার কথা ছিল মমতার। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত থেকে আচমকাই সরে এলেন মুখ্যমন্ত্রী।
কিন্তু কেন সিদ্ধান্ত বদল করলেন মমতা?‌ টুইটে নিজেই সেকথা জানিয়েছেন তিনি। একটি ছবি পোস্ট করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে লেখা, ‘‌প্রধানমন্ত্রী পদে দ্বিতীয়বার বসার জন্য আপনাকে অভিনন্দন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজি। সাংবিধানিক সৌজন্যের খাতিরে আমি এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকব ভেবেছিলাম। কিন্তু গত এক ঘণ্টায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছে যে, বিজেপির দাবি এ রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসায় ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু এটা একেবারেই সত্য নয়। বাংলায় রাজনৈতিক হিংসায় কারোর মৃত্যু হয়নি। ব্যক্তিগত শত্রুতা, পারিবারিক ঝগড়া এবং অন্যান্য কারণে ওই খুনের ঘটনাগুলি ঘটেছে। আমাদের কাছে রাজনৈতিক খুনের ব্যাপারে কোনও খবর নেই। তাই আমি দুঃখিত, নরেন্দ্র মোদিজি। এই কারণে এই শপথগ্রহণে আমি থাকতে পারছি না। প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণ এমন একটি অনুষ্ঠান যা কিনা আসলে গণতন্ত্রের উৎসব। কিন্তু এই অনুষ্ঠানকে ঘিরে যদি কোনও রাজনৈতিক দল নিজেদের আখের গোছানোর প্রচেষ্টা করে, তাহলে সেটা মেনে নেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়।’‌ এর আগে অবশ্য মঙ্গলবার নবান্নে তিনি জানিয়েছিলেন, সাংবিধানিক সৌজন্যতার খাতিরে মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি যাবেন।

জনপ্রিয়

Back To Top