আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌সৌমিত্র চ্যাটার্জি, অপর্ণা সেন, পরিচালক আদুর গোপালকৃষ্ণাণ, শ্যাম বেনেগাল, সমাজতত্ত্ববিদ আশিষ নন্দী, ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ সহ মোট ৪৯ জন গত জুলাই মাসে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির উদ্দেশ্যে লেখা খোলা চিঠিতে দেশে গণপিটুনির ত্রমবর্ধমান ঘটনা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। এই ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে এফআইআর দায়ের করে বসেন সুধীর ওঝা নামে এক আইনজীবী। কিন্তু সেই অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন হলে অপর্ণাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রোদ্রোহীতার অভিযোগ খারিজ করে দিল বিহার পুলিশ। তদন্তকারী অফিসার দু–একদিনের মধ্যে স্থানীয় আদালতে এই রিপোর্ট জমা দেবেন বলে জানানো হয়েছে বিহার পুলিশের পক্ষ থেকে। সূত্রের খবর, অভিযোগকারী আইনজীবী বিজেপির শরিক দল জনশক্তি পার্টির কর্মী। অভিযোগ তো খারিজ করা হয়েছেই। উল্টে তাঁর বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে।  
অপর্ণাদের চিঠি নিয়ে দেশীয় রাজনীতিতে প্রবল জলঘোলা হয়েছিল। পাল্টা চিঠি দিয়েছিলেন ৬১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি। অপর্ণাদের পাল্টা চিঠি যাঁরা দিয়েছিলেন, জানা গিয়েছিল তাঁদের অনেকেই বিজেপি কর্মী। সম্প্রতি বিহারের মুজফফরপুরে অপর্ণাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ তুলে এফআইআর দায়ের করেন সুধীর ওঝা নামে ওই আইনজীবী। সেই এফআইআরের বিরোধিতায় অপর্ণা–সৌমিত্রদের সমর্থন জানিয়ে চিঠি লিখেছেন ১৮৫ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি। সেই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ, ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপার, সুরকার টি এম কৃষ্ণ, সমাজকর্মী হর্ষ মন্দার, লেখক অশোক বাজপেয়ী ও জেরি পিন্টো সহ ১৮৫ জন। স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে রয়েছেন বাংলার বেশ কয়েকজন শিক্ষাবিদ ও সমাজকর্মী। এদিকে চাপের মুখে বিহার পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিযোগ ভিত্তিহীন প্রমাণিত হওয়ায় মুজফফরে দায়ের হওয়া অভিযোগটি খারিজ করা হয়েছে।   

জনপ্রিয়

Back To Top