আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ন’‌হাজার কোটি টাকা ঋণ খেলাপির পর সমঝোতা করতে তৎকালীন অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছিলেন বিজয় মালিয়া। সময়টা ২০১৬ সাল। তখন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী ছিলেন অরুণ জেটলি। বুধবার এই বিস্ফোরক দাবি করার সময় অবশ্য অর্থমন্ত্রীর নাম উল্লেখ করেননি বিজয় মালিয়া। তিনি জানিয়েছেন, দেশ ছেড়েছিলেন কারণ জেনেভায় একটি জরুরি বৈঠক ছিল তাঁর। তবে তখন যে ব্যাঙ্কের সঙ্গে ঋণ খেলাপি নিয়ে সমঝোতা করার প্রস্তাব তিনি অর্থমন্ত্রীকে দিয়েছিলেন সেকথা প্রকাশ্যেই জানিয়েছেন। 
তারপর আর মালিয়ার নাগাল পায়নি ভারত সরকার। দীর্ঘদিন বলা চলে আত্মগোপন করে ছিলেন তিনি। পরে লন্ডনে একটি ক্রিকেট ম্যাচ চলাকালীন স্টেডিয়ামে ছেলের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। ততদিনে ভারত সরকারের হাতের নাগাল থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন। লন্ডনের নাগরিকত্ব নিয়ে দিব্য খোস মেজাজে রয়েছেন। 
জেটলি কিন্তু সপাটে মালিয়ার এই বিস্ফোরক দাবিকে ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। বিবৃতি জারি করে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন দেশ ছাড়ার আগে বিজয় মালিয়া তাঁর সঙ্গে কোনও বৈঠক করেনি। ২০১৪ সাল থেকে বিজয় মালিয়ার সঙ্গে তাঁর কোনও সাক্ষাৎই হয়নি বলে পাল্টা দাবি করেছেন অরুণ জেটলি। 
যদিও মোদি সরকার মালিয়াকে ফেরানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার কোর্টে তাঁকে প্রত্যর্পণের মামলা চলছে। সেই মামলার শুনানি চলাকালীনই লন্ডনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন একথা। তবে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কী নিয়ে কথা হয়েছিল তা প্রকাশ করতে চাননি। 
মালিয়ার এই বক্তব্য প্রকাশ্যে আসার পরেই বিরোধীরা আক্রমণ শানাতে শুরু করেছেন। অরবিন্দ কেজরিওয়াল বিজেপিকে আক্রমণ করে বলেছেন, অরুণ জেটলির সঙ্গে বিজয় মালিয়া যদি বৈঠক করে থাকেন তাহলে সে কথা নিশ্চয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানতেন। ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top