বিজয়প্রকাশ দাস, পূর্ব বর্ধমান: ফের এনআরসি–আতঙ্কে আত্মঘাতী হলেন শিপ্রা শিকদার (৩৪) নামে এক মহিলা। জামালপুর জৌগ্রামের তেলেগ্রামে। অভিযোগ, এনআরসি–র জন্য পরিবারের সকলের কাগজপত্র জোগাড় করতে না পারায় বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন ওই মহিলা। শেষে শনিবার ভোরের দিকে রান্নাঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। এদিন সকালে তঁার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেন পাড়া–প্রতিবেশীরা। জামালপুর থানায় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত শুরু করে। মৃতার স্বামী সুভাষ শিকদার পুলিশকে জানিয়েছেন, বাড়ির কাগজপত্র ঠিকঠাক করার জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি এবং তঁার স্ত্রী উঠেপড়ে লেগেছিলাম। বিভিন্ন অফিসে দৌড়ঝঁাপ শুরু করছিলেন। কিন্তু সমস্ত কাগজপত্র ঠিকঠাক করে উঠতে না পারায় এনআরসি–আতঙ্কে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তঁার স্ত্রী। প্রতিবেশী মৃদুলকান্তি মণ্ডল বলেন, ‘‌এই এলাকার আশপাশের গ্রামগুলির বেশিরভাগই পূর্ববঙ্গ থেকে আসা মানুষজন। এলাকার মানুষের কাছে কোনও কাগজপত্রই নেই। মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। পরিবারে আর্থিক অনটন খুব একটা নেই। স্বামী–স্ত্রী দু’‌জনই কাজ করেন। কিন্তু এনআরসি নিয়ে সবাই আমরা কমবেশি আতঙ্কে ভুগছি। শেষ পর্যন্ত তিনি ছেলেমেয়েদের কষ্ট দেখতে পারবেন না ভেবেই এই পথ বেছে নিয়েছেন।’‌ তঁার কথায়, ‘‌আমরা প্রতিবেশী হিসেবে চাইছি, এই অসহায় পরিবারের পাশে যাতে সরকার থাকে। এই এলাকার মানুষ যাতে এই আতঙ্কে আতঙ্কিত না হন।’ জামালপুরের তৃণমূল নেতা মেহমুদ খান জানান, এদিন সকালে তিনি খবর পেয়েছেন।

জনপ্রিয়

Back To Top