আজকাল ওয়েবডেস্ক: কমিশনের ডাকা সর্বদল বৈঠকে উঠে এল না কোনও সমাধান। আলোচনার নিট ফল জিরো। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বাকি দফার ভোট কীভাবে করা যায় তা নিয়ে শুক্রবার নির্বাচন কমিশন একটি সর্বদলীয় বৈঠক ডাকে। সেখানে উঠে আসে রাজনৈতিক প্রচারের বিষয়টিও। কিন্তু সভা শেষে রাজনৈতিক নেতারা বল ঠেলে দিয়েছেন কমিশনের দিকেই। সংযুক্ত মোর্চার পক্ষে সিপিএম নেতা বিকাশ ভট্টাচার্য বলেন, ‘‌কমিশন তাঁদেরকে জানিয়ে দিক কী কী মেনে চলতে হবে। তাঁরা তাই করবেন। আর বৈঠকে নির্বাচনের দফা কমানো নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি।’‌  
এদিন বিজেপির পক্ষে দাবি করা হয়েছে, ভোটের দফা নিয়ে নির্বাচন কমিশন আগেই জানিয়ে দিয়েছে পূর্ব ঘোষিত নির্ঘন্ট মেনেই ভোট হবে। দফা কমানো নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। বিজেপির ধারণা ভোট আট দফাতেই হবে। 
বাকি দফায় প্রচার ভার্চুয়ালি করা হবে কি না সে বিষয়ে বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, রাজ্যে ইতিমধ্যেই ৬১ শতাংশ নির্বাচন হয়ে গেছে। বাকি আছে ৩৯ শতাংশ। প্রচার ভার্চুয়ালি করা সম্ভব নয়। সভায় উপস্থিত আরেক বিজেপি নেতা শিশির বাজোরিয়া বলেন, ‌ভার্চুয়াল প্রচার হলে ছোট দল বা নির্দল প্রার্থীদের সমস্যা হবে। কারণ, তাদের সেই পর্যাপ্ত পরিকাঠামো নেই। 
এর আগেই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে ভোটের দফা কমিয়ে আনার দাবি তোলা হয়। এদিন রাজ্যের বিদায়ী শিক্ষামন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা পার্থ চ্যাটার্জি বলেন, মানুষের কথা ভেবে যদি বাকি শেষ ৩ দফার ভোট একইদিনে করা হয় সেক্ষেত্রে আমাদের কোনও আপত্তি থাকবে না।  

Back To Top