আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রাজ্যে লাগাতার বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। আর তার মধ্যেই আগামীকাল পঞ্চম দফার ভোট অনুষ্ঠিত হতে চলেছে রাজ্যের ৬ জেলায়। রাত পোহালেই ভোটগ্রহণ পর্ব শুরু হবে ৬ জেলার মোট ৪৫ টি আসনে। পঞ্চম দফার ভোটে কোনওরকম রাজনৈতিক হিংসা ঘটুক চায় না কমিশন। তাই নির্বাচন কমিশন নিরাপত্তা ব্যবস্থায় জোর দিতে বদ্ধপরিকর। পঞ্চম দফার জন্য মোট ১০৭১ কোম্পানি আধা সেনা মোতায়েন রাখা হচ্ছে। ভোটের কাজে ব্যবহার করা হবে ৮৫৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনীকে। পঞ্চম দফায় বারাসতেই মোতায়েন রাখা হচ্ছে ৬৯ কোম্পানি আধা সেনা, পঞ্চম দফায় সবার নজর থাকছে উত্তর ২৪ পরগণার বিধান নগর আসনটির দিকে। এই কেন্দ্রে এবার লড়াই করছেন তৃণমূলের সুজিত বসু এবং বিজেপির সব্যসাচী দত্ত। হেভিওয়েট এই লড়াইয়ে বিধাননগর বিধানসভা কেন্দ্রের সমস্ত বুথে যাতে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে  ৪৬ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখা হচ্ছে। ভোটকে কেন্দ্র করে পাহাড়ে যাতে আইনশৃঙ্খলার কোনওরকম অবনতি না ঘটে সেই জন্য  দার্জিলিংয়ে মোতায়েন রাখা হচ্ছে ৬৮ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং কালিম্পংয়ে থাকছে ২১ কোম্পানি আধা সেনা। সমতলে শিলিগুড়িতে মোতায়েন রাখা হচ্ছে ৫৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। উত্তরবঙ্গের আরেক জেলা জলপাইগুড়িতে অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে ১২২ কোম্পানি আধা সেনা মোতায়েন রাখা হচ্ছে। চতুর্থ দফার ভোটে কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর ছোড়া গুলিতে মৃত্যু হয় ৪ তৃণমূল কর্মীর যা নিয়ে ভোট বঙ্গে রাজনৈতিক চাপানউতোর এখনও চলছে। তাই পঞ্চম দফায় ভোট নিয়ে যথেষ্ট সতর্ক নির্বাচন কমিশন। পঞ্চম দফায় অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ ভোট করানোই এখন মূল চ্যালেঞ্জ নির্বাচন কমিশনের কাছে। 

Back To Top