মলয় সিন্‌হা: পৃথিবীজুড়ে বাড়ছে দূষণের মাত্রা। বাদ যাচ্ছে না পাহাড়ও। সিকিম ‘প্লাস্টিকহীন রাজ্য’ ঘোষিত হওয়ার পরও বাদ যায়নি দূষণ থেকে। স্থানীয়রা তো বটেই, ট্রেকিং এবং পর্যটকদের দাপটে প্রকৃতির সৌন্দর্যে ভরা পশ্চিম সিকিমের জনপ্রিয় ট্রেকিং এলাকাগুলিতে বৃদ্ধি পেয়েছে দূষণের মাত্রা। 
হিমালয়ের খুব কাছে সিকিমের ইয়াকসাম, বাকহিম, তোশকা, ফেডাং, ডোজংরি, গোচা–লা এলাকার রাস্তা এবং পাহাড়ের কোলে জঙ্গলে বেড়ে চলছে জঞ্জাল। তাই হিমালয়ের বিভিন্ন অঞ্চলের পরিবেশ দূষণমুক্ত করতে ভারত সরকারের যুবকল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তরের আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে এসেছে ইন্ডিয়ান মাউন্টেনিয়ারিং ফাউন্ডেশন (‌আইএমএফ)‌। এভারেস্টজয়ী পর্বতারোহী তথা সংস্থার পূর্বাঞ্চলীয় শাখা সম্পাদক দেবরাজ দত্তের নেতৃত্বে একটি দল পশ্চিম সিকিম জেলার ছ’টি জনপ্রিয় ট্রেকিংয়ের এলাকায় ১ থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত সাফাই অভিযান চালিয়ে ২,১৩৭ কেজি জঞ্জাল সাফাই করেছে।  তিনটি ট্রাকে ২১৯টি ব্যাগে ওই জঞ্জাল ভরে সিকিমের জোরথাংয়ে ডিসপোজাল সেন্টারের কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দিয়েছে তারা।
জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে কলকাতা থেকে ছয় পর্বতারোহীকে নিয়ে সিকিম রওনা দেন দেবরাজ। ওই দলে ছিলেন সিকিমের স্কুল ও কলেজের এনসিসি, ন্যাশনাল সার্ভিস স্কিম (‌এনএসএস)‌ এবং নেহরু যুব কেন্দ্রের (‌এনওয়াইকে)‌ ২৩ জন স্বেচ্ছাসেবক। ৩০ জনের দলটি দু’টি ভাগে বিভক্ত হয়ে সাফাই অভিযান চালায়। প্রথম দলটি জঞ্জাল পরিষ্কার করে এক জায়গায় রাখে। দ্বিতীয় দলটি ব্যাগে ভরে গাড়িতে তোলে। দেবরাজের কথায়, ‘‌শুধু সাফাই নয়। পাশাপাশি স্থানীয় গ্রামের মানুষ, পর্যটক এবং স্কুলগুলিতেও সচেতনতার প্রচার করা হয়েছে।’‌ তিনি আরও বলেন, ‘‌পশ্চিম সিকিমের ওই জায়গা থেকে প্রচুর প্লাস্টিক পাওয়া গেছে। ৭০ শতাংশই বহুজাতিক সংস্থার নানা পণ্যের র‌্যাপার, বোতল। ২০ শতাংশ কাচের বোতল এবং ১০ ভাগ টিনের নানা সামগ্রী। শুধু সাফাই নয়, স্থানীয় বাসিন্দা, পর্যটক এবং নতুন ট্রেকিং করতে আসা সবাইকে সচেতন হতে হবে।’‌ 
এই নিয়ে তিন বছর ‘স্বচ্ছ ভারত’ প্রকল্পের অন্তর্গত ‘‌ক্লিন হিমালয় ক্যাম্পেন’‌ করছে আইএমএফ। হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, অরুণাচল প্রদেশের জনপ্রিয় ট্রেকিং পথগুলিতেও সাফাই অভিযান করা হয়। ‘ক্লিন হিমালয় ক্যাম্পেন’–এর সর্বভারতীয় চেয়ারম্যান প্রাক্তন উইং কমান্ডার সুধীর কৃষ্ণন কুট্টি বলেন, ‘‌আমরা শুধু সাফাই অভিযানই করছি না। পাহাড়ে দূষণ রুখতে নতুন প্রজন্মের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির প্রচারও করছি।’‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top