আজকালের প্রতিবেদন: বাজারে কাঁচা সবজির দাম কমাতে কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বৃহস্পতিবার নবান্নে কৃষি বিপণনের টাস্ক ফোর্সের বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌সাত–আট দিনের মধ্যেই সবজির দাম স্বাভাবিক হয়ে যাবে।’‌ তিনি বলেন, ‘‌পেঁয়াজ নিয়ে সমস্যা রয়েছে ঠিকই, কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থা নাফেড ২৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ দেবে বলেছিল। কিন্তু দেয়নি। তারা পেঁয়াজ দিলে দাম কমে যেত। তারা কথা রাখেনি। সুফল বাংলা থেকে ৫৯ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে। এই দামে পেঁয়াজ মানুষের কাছে বেশি করে পৌঁছে দিতে আরও সুফল বাংলার স্টল খোলা হবে। তবে হিমঘরে যা আলু মজুত রয়েছে, তাতে ডিসেম্বর পর্যন্ত খুব ভালভাবে রাজ্যবাসীর চলে যাওয়ার কথা। জানুয়ারিতে নতুন আলু উঠবে।’‌
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌বুলবুলের পর কিছু সংবাদমাধ্যমে সবজির দাম বেড়ে যাবে বলে প্রচার করা হয়। এর ফলে ফড়েরা সুযোগ নিয়ে বাজারে শাকসবজির দাম বাড়িয়ে দেয়।’‌ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, বুলবুলের প্রভাবে কিছু জেলায় ফসল এবং সবজি নষ্ট হয়েছে ঠিকই, কিন্তু সব জেলায় তো হয়নি। যে সব জায়গায় বৃষ্টি হয়নি, সেখানে তো ফসল রয়েছে। তা হলে কেন বাজারে দাম বাড়বে?‌ এদিনের বৈঠকে তাই তিনি খুচরো বাজারের ফড়েদের দৌরাত্ম্য কমাতে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ গোয়েন্দা বিভাগ ও কলকাতা পুলিশকে কড়া ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌কৃষকরা যে দামে মাঠ থেকে ফসল তুলে পাইকারি বাজারে বিক্রি করছেন, তার চেয়ে চার–পাঁচ গুণ বেশি দামে খুচরো বাজারে বিক্রি হচ্ছে।’‌ ব্যবসায়ী সংগঠনগুলিকে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন এই ধরনের কাজ বন্ধ করতে। ব্যবসায়ী সংগঠনগুলিও আশ্বাস দিয়েছে, আগামী সাত–আট দিনের মধ্যে এই সমস্যা মিটিয়ে ফেলবে তারা। শীতের সবজি বাঁধাকপি, ফুলকপির দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, ‘‌ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, খুব কম সময়ের ব্যবধানে চার–পাঁচবার বৃষ্টি হওয়ায় মাঠে কপি আকারে বাড়তে পারেনি। কিন্তু যে জেলাগুলিতে ফলন ভাল হয়েছে সেখান থেকে যাতে কলকাতার বাজারে কপি আনা যায়, তার জন্য পরিবহণ দপ্তরকে ট্রাকের ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে।’
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌আমরা বলেছি ট্রাকের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। তা হলে মাঝখানে ফড়েদের সাহায্য আর দরকার হবে না। রাজ্য জুড়ে অসাধু ফড়েদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হিমঘরে এখনও ১৪ লক্ষ মেট্রিক টন আলু রয়েছে। তার মধ্যে ৩ লক্ষ রাখতে হবে বীজ তৈরির জন্য। বাকি ১১ লক্ষ মেট্রিক টন আলু ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজ্যের মানুষের জন্য যথেষ্ট। আলু বাজারে ১৩ থেকে ১৫ টাকার মধ্যেই ছিল। হঠাৎ করে খুচরো বাজারের ব্যবসায়ীদের বদমায়েশির জন্য দাম বেড়ে গেছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে এ সব ঠিক হয়ে যাবে।’‌ 
এদিন তিনি হঠাৎ করে বাজারে সবজির দাম বেড়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে টাস্ক ফোর্সের বৈঠক ডেকেছিলেন। পঞ্চায়েত, কৃষি, কৃষি বিপণন, মৎস্য, খাদ্য ও পরিবহণ দপ্তরকে নিয়ে বৈঠক করেন তিনি। এই সব দপ্তরের মন্ত্রীরা ছাড়াও সচিবরা ছিলেন। ছিলেন মুখ্য সচিব রাজীব সিনহা, স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র, রাজ্য নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ কর পুরকায়স্থ, কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। এ ছাড়াও ছিলেন এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ, এসটিএফ–সহ পুলিশের শীর্ষকর্তারা।‌

 

শিশু দিবসে খুদে পড়ুয়াদের নবান্নে ডেকে উপহার দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার খুদেদের ব্যাগ, খেলনা ও মিষ্টি দেওয়া হয়। শিশুরা মুখ্যমন্ত্রীকে আবৃত্তি, গান শোনায়। বড় হয়ে কে কী হতে চায়, তাও জানায় তারা। শিশুদের সঙ্গে এসেছিলেন তাদের স্কুলের শিক্ষকরা। তাঁদেরকেও উপহার দেন মুখ্যমন্ত্রী। সবার সঙ্গে গল্প করেন তিনি। শিশুদের সঙ্গে ছবিও তোলেন। সেই ছবি মুখ্যমন্ত্রী তাঁর ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। সমস্ত শিশুকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ছবি: আজকাল

জনপ্রিয়

Back To Top