প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়: ৫ বছরের ছেলেকে নিয়ে বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে গুলিবিদ্ধ হলেন এক তৃণমূল কর্মী। রবিবার সকালে প্রকাশ্যে এই ঘটনাটি ঘটে সাঁতরাগাছি থানার বাকসাড়া বাজার এলাকায়। গুলিবিদ্ধ ওই তৃণমূল কর্মীর নাম নিমাই দে ওরফে পরিতোষ (৩৭)। বাড়ি ফেরার পথে ২ যুবক বাইকে সামনে এসে খুব কাছ থেকে তাঁকে লক্ষ্য করে পরপর দু’রাউন্ড গুলি চালায়। একটি গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হলেও আরেকটি গুলি তাঁর কানে লেগে বেরিয়ে যায়। গুলির শব্দে বাসিন্দারা রাস্তায় এসে দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন নিমাই। তাঁর কানের পাশ থেকে রক্ত ঝরছে। পাশেই দাঁড়িয়ে কাঁদছে তাঁর ছেলে। নিমেষেই বাইক চালিয়ে উধাও হয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। গুরুতর জখম নিমাইকে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন। ক্ষিপ্ত এলাকার বাসিন্দা গৌতম ভৌমিক, নির্মল ব্যানার্জিরা বলেন, এই এলাকা খুবই শান্তিপূর্ণ। এ ধরনের কোনও ঘটনা আগে ঘটেনি। হঠাৎই এরকম গুলি চালিয়ে প্রকাশ্যে খুনের চেষ্টা করে এলাকায় পরিকল্পিতভাবে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা চলছে। দক্ষিণ হাওড়ার তৃণমূল নেতা গুড্ডু ভাই বলেন, ‘নিমাই আমাদের দলের সক্রিয় কর্মী। রবিবার বিকেলেও এলাকায় ২১ জুলাইয়ের প্রস্তুতি উপলক্ষে এক মিছিলের বিষয়ে উদ্যোগী ছিলেন।’ তাঁর অভিযোগ, ‘‌বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা ওই মিছিল বানচাল করতে এবং এলাকায় অশান্তি ছড়িয়ে মানুষকে সন্ত্রস্ত করে তুলতে নিমাইকে গুলি করে খুন করতে চেয়েছিল। কিন্তু বরাত জোরে তিনি বেঁচে গেছেন। পুলিশকে বলেছি দ্রুত দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করতে হবে।’ এদিকে, এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। হাওড়া সিটি পুলিশের এক কর্তা জানান, রাজনৈতিক কারণ নাকি অন্য কোনও ব্যক্তিগত আক্রোশের জেরে এই ঘটনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। অন্যদিকে, বিজেপি–র জেলা নেতা দেবাঞ্জল চ্যাটার্জির পাল্টা দাবি, এর সঙ্গে বিজেপি কোনওভাবেই জড়িত নয়।

জনপ্রিয়

Back To Top