আজকালের প্রতিবেদন- টেকনো ইন্ডিয়া ইউনিভার্সিটির পঠনপাঠন এবং শিক্ষাক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেওয়ার ভূয়সী প্রশংসা করলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন উৎসবে তিনি যোগ দিয়েছিলেন। উপস্থিত ছিলেন ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক শ্রীমৎ স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার প্রাক্তন চেয়ারম্যান অরুন্ধতী ভট্টাচার্য। টেকনো ইন্ডিয়া ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে এদিন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ বিবেক দেবরায় এবং খ্যাতনামা সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহকে সাম্মানিক ডিলিট উপাধিতে ভূষিত করা হয়।
বিভিন্ন আধুনিক কোর্স চালু করে কর্মমুখী শিক্ষার দিগন্ত খুলে এই বিশ্ববিদ্যালয় ইতিমধ্যেই ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আচার্য অধ্যাপক গৌতম রায়চৌধুরি তাঁর ভাষণে দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানান। এবং আগামী দিনে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মধারা সম্পর্কে অবহিত করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য ড.‌ গৌতম সেনগুপ্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের কৃতিত্বের কথা তুলে ধরেন। এদিন মোট ১,৭০৩ জন পড়ুয়াকে স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং পিএইচ ডি ডিগ্রি দেওয়া হয়। মনোজ্ঞ ভাষণ দেন অধ্যাপক এম রায়চৌধুরি। যিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ আচার্য। ভাষণে স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ দেশ ও সমাজের উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিশেষত দারিদ্র‌্য দূরীকরণে ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের ভূমিকার কথা বলেন।‌

সমাবর্তন অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। রয়েছেন রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব দেবাশিস সেন, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার প্রাক্তন চেয়ারম্যান অরুন্ধতী ভট্টাচার্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর গৌতম রায়চৌধুরী, কো–চ্যান্সেলর মানসী রায়চৌধুরী, মেঘদূত রায়চৌধুরী ও বিশিষ্টরা। নিউ টাউনের বিশ্ব বাংলা কনভেনশন সেন্টারে। সোমবার। ছবি:‌ জয় সাধুখাঁ ‌

জনপ্রিয়

Back To Top