চন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ও বিজয়প্রকাশ দাস
কাটোয়া ও আউশগ্রাম, ৮ জুলাই

‘‌বালি চুরি রুখতে যেমন ছদ্মবেশ নিয়েছিলাম, ঠিক একই পথ অবলম্বন করব বনসম্পদ চুরি রোখার জন্য। এজন্য  অ্যাকশন কমিটি রেডি করা হয়েছে।’‌ বুধবার আউশগ্রামে বন্য জীবজন্তুদের উদ্ধার করার জন্য ‘‌ঐরাবত’‌ নামে একটি বিশেষ যানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করতে এসে জানালেন রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জি। কাটোয়ায় কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধনের পর মন্ত্রী আউশগ্রামে আসেন। এখানে ঐরাবত ছাড়াও আরও বেশ কিছু প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি। 
জলদূষণ দূর করা ও জীববৈচিত্র রক্ষায় ‘সিদ্ধহস্ত’ শুশুক। তাই বিরল প্রজাতির এই প্রাণীটি বাঁচানো ও বংশবিস্তারে মদত দিতে উদ্যোগী হল রাজ্যের বন দপ্তর। বুধবার কাটোয়ার ভাগীরথীর শাঁখাই ঘাটে রাজ্যের বনমন্ত্রী গাঙ্গেয় শুশুক সচেতনতা প্রসার কেন্দ্র ও একটি দ্রুতগামী জলযানের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। বনমন্ত্রী বলেন, ‘গাঙ্গেয় শুশুক শিকার রুখতে নিরবচ্ছিন্ন সচেতনতা প্রচার করা হবে। শিকারিদের ধরতে বিশেষ জলযানে নজরদারি চালানো হবে।’ 
এদিন, বনমন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জি এসটিকেকে রোড লাগোয়া নতুনগ্রামে বন দপ্তরের কাটোয়া রেঞ্জের নিজস্ব কার্যালয় ও কর্মী আবাসনেরও শিলান্যাস করেন। এছাড়াও আউসগ্রামে ভালকি বনক্ষেত্র কার্যালয়ের দ্বারোদ্ঘাটন, বৈদ্যুতিন যন্ত্র চালিত শালপাতার থালা ও বাটি প্রস্তুতিকরণ কেন্দ্রের উদ্বোধন এবং মৎস্য বীজ উৎপাদন কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন তিনি। ছিলেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, কাটোয়ার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চ্যাটার্জি, পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া প্রমুখ।‌

জনপ্রিয়

Back To Top